সৌভাগ্য বৃদ্ধিতে শো-পিসের ভূমিকা

সৌভাগ্য বৃদ্ধিতে শো-পিসের ভূমিকা

সংসারে সুখ, শান্তি ও আর্থিক সমৃদ্ধির জন্য বাড়িতে আমরা অনেক কিছুই রাখি। কিন্তু আপনি জানেন কি, কোন কোন শো-পিস রাখা ভাগ্যের জন্য শুভ? বাড়িতে কোথায় কোন জিনিস রাখা উচিত তার ব্যাখ্যা রয়েছে বাস্তুশাস্ত্রে। এখন জেনে নেওয়া যাক কোন কোন শো পিসগুলি বাড়িতে রাখলে সৌভাগ্য বৃদ্ধি পায়:

১। ঘরের প্রধান দরজার সামনে লাল সুতোয় পয়সা বেঁধে ঝুলিয়ে রাখলে সৌভাগ্য ও আর্থিক সমৃদ্ধি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। মনে রাখবেন, তিনটি পয়সা ঝোলালে তা বেশি কার্যকরী হয় বলে বাস্তুশাস্ত্র মতে বিশ্বাস করা হয়, তবে পয়সাগুলো যেন দরজায় ভেতরের দিকে ঝোলানো হয়।

২। বাড়িতে মাছ রাখলে সৌভাগ্য বৃদ্ধি পায়। ড্রইংরুমে অ্যাকোয়ারিয়াম রাখুন, তবে গোল্ডফিশ-কে কখনওই রান্নাঘর, বাথরুম এবং শোয়ার ঘরে রাখবেন না।

৩। জোড়া ড্রাগন সমৃদ্ধির প্রতীক। ড্রাগনের মূর্তির পায়ের থাবায় যে মুক্ত বসানো থাকে তা বাড়িতে ইতিবাচক এনার্জি আনে। জোড়া ড্রাগন মূর্তি যে কোনও দিকে মুখ করে রাখা যায়, তবে পূর্ব দিকে মুখ করে রাখলে বেশি ফলপ্রসূ হয়।  

৪। সদর দরজার কোণাকুনি লিভিং রুমে লাফিং বুদ্ধ রাখলে আর্থিক এবং সার্বিক সমৃদ্ধি হয় তবে লাফিং বুদ্ধ মূর্তি কখনই একেবারে সদর দরজার সামনে রাখবেন না।

৫। ঘরে কচ্ছপ মূর্তি রাখলে তা সুখ এবং আর্থিক সমৃদ্ধি বৃদ্ধি করে। কচ্ছপ মূর্তির মুখ যদি ভেতরের দিকে ঢোকানো হয় তা হলে তা বেশি কার্যকরী বলে মনে করা হয়। তবে এই ধরনের কচ্ছপ ঘরে কখনও জোড়ায় রাখবেন না। এটা উত্তর দিকে মুখ করে রাখবেন। ফেং শুই মতে মনে করা হয় যে, ঘরে তামার কচ্ছপ রাখলে আর্থিক নানা সমস্যা কমতে শুরু করে। ফলে সঞ্চয় বাড়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এ ছাড়া লোহা, তামা, মাটি ও ক্রিস্টালের কচ্ছপ বাড়িতে বা অফিসে এনে রাখলে ভগবান বিষ্ণুর আশীর্বাদ থেকে বঞ্চিত হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। এবং সেইসঙ্গে অনেক উপকার পাওয়া যায়। যে কচ্ছপ মূর্তির পিঠে ছোট কচ্ছপ থাকে সেই ধরনের মূর্তি ঘরে রাখলে সন্তানপ্রাপ্তির জন্য তা শুভ বলে মানা হয়।

৬। মুখে পয়সা ধরে রাখা তিন পায়ের ব্যাঙ অত্যন্ত শুভ বলে মানা হয়। এই মূর্তি সদর দরজার আশপাশে রাখা উচিত। এতে সৌভাগ্য ফেরে, তবে এই মূর্তি রান্নাঘর এবং বাথরুমে রাখবেন না।

৭। ফেং শুই মতে বিশ্বাস করা হয়, প্যাঁচার মূর্তি বাড়িতে রাখলে তা বাড়িতে জায়গা করে নেওয়া নেগেটিভ শক্তির মাত্রা কমাতে থাকে। এর ফলে মানসিক এবং শারীরিক ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

৮। সোনালি রংয়ের প্যাঁচার মূর্তি যদি বাড়ির দক্ষিণ-পূর্ব দিকে রাখেন তা হলে দেখবেন যেমন অর্থনৈতিক উন্নতির ছোঁয়া লাগবে, তেমন স্বামী স্ত্রীর মধ্যেকার সম্পর্কের উন্নতি ঘটবে। সেই সঙ্গে গৃহস্থের অন্দরে অশান্তি বা কলহ মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার সম্ভাবনা কমে যাবে। বাড়ির উত্তর-পূর্ব দিকে প্যাঁচার মূর্তি রাখলে সেই বাড়িতে খারাপ কোনও ঘটনা ঘটার আশঙ্কা একেবারেই কমে যায়। এ ছাড়া প্যাঁচার মূর্তি আপনার কর্মস্থলে বা ব্যবসায়িক স্থানে রাখতে পারেন। এতে কর্মে সাফল্য বৃদ্ধি পাবে।