দেশে ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে দ্বিতীয় ঢেউ , ৫ রাজ্য রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত

দেশে ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে  দ্বিতীয় ঢেউ , ৫ রাজ্য রেকর্ড সংখ্যক  আক্রান্ত

প্রথম পর্যায়ের থেকে দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আরও ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে । এখনও পর্যন্ত দেশের কিছু রাজ্যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে, কিন্তু আবার বেশ কিছু রাজ্যে বেলাগাম হয়ে গিয়েছে করোনা পরিস্থিতি । এর জেরে স্বাভাবিক ভাবেই গোটা দেশে ফের একবার আতঙ্কের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে । মঙ্গলবার দেশের ৫ রাজ্যে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন । এই রাজ্যগুলির মধ্যে সামিল রয়েছে উত্তরপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, মধ্যপ্রদেশ ।

উত্তরপ্রদেশে মঙ্গলবার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ হাজার জন । রিপোর্ট অনুযায়ী, রাজ্যে ৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছে । এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লক্ষ পেরিয়ে গিয়েছে । মৃত্যু হয়েছে মোট ৯৩০৯ জনের । মঙ্গলবার লখনউতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫৩৮২ যা গোটা রাজ্যে সবচেয়ে বেশি । এলাহাবাদে ১৮৫৬ কেস সামনে এসেছে, বারাণসীতে ১৪০৪, কানপুরে ১২৭১ । গুজরাতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬৬৯০ যা এখনও পর্যন্ত একদিনে সবচেয়ে বেশি ।

রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৬০২০৬ । মোট মৃতের সংখ্যা ৪৭৯২২ । পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য রাজ্যের একাধিক জায়গায় নাইট কার্ফু জারি করে দেওয়া হয়েছে । মহারাষ্ট্রকে এখনও দেশের মধ্যে কোভিড হটস্পট হয়ে রয়েছে । সোমবার আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা কমলেও মঙ্গলবার ফের ৬০ হাজারের বেশি আক্রান্ত হয়েছে । রাজ্য সরকার ইতিমধ্যেই ১৫ দিনের কার্ফু ঘোষণা করে দিয়েছে । এবারের লকডাউনে আগের বারের থেকে অনেক বেশি ছাড় পাওয়া যাবে । মধ্যপ্রদেশেও মঙ্গলবার রেকর্ড সংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ।

মঙ্গলবার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮৯৯৮ । ৪০ জনের মৃত্যু সহ মোট মৃতের সংখ্যা ৪২৬১ হয়ে গিয়েছে । বর্তমানে রাজ্যে অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ৪৩৫৩৯ হয়ে গিয়েছে । দিল্লিতে মঙ্গলবার করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৩ হাজার । মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল নাইট কার্ফুর পাশাপাশি টেস্টিং ও হাসপাতালে টেস্টিং বাড়ানোর মতো পদক্ষেপ নিতে বলেছে । পশ্চিমবঙ্গেও করোনা পরিস্থিতি বেশ চিন্তাজনক পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে । ২৪ ঘণ্টায় করোনার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪৮১৭ । কলকাতায় একদিনে আক্রান্ত ১২৭১ । এছাড়া উত্তরাখণ্ড, অন্ধ্রপ্রদেশে একদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা রেকর্ড ছাড়িয়ে গিয়েছে ।