জুয়ার ঠেকে তর্কাতর্কি শুরু হতেই চলল গুলি , মালদহ শহরে গুলিবিদ্ধ এক

জুয়ার ঠেকে তর্কাতর্কি শুরু হতেই চলল গুলি , মালদহ শহরে গুলিবিদ্ধ এক

রাতভর চলছিল জুয়ার ঠেক। ভোরে খেলাকে কেন্দ্র করে নিজেদের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। তার পরেই চলল গুলি। গুলিবিদ্ধ এক। অভিযুক্তকে বেধড়ক মারধর করে অন্যরা। বৃহস্পতিবার ভোরে মালদহ শহরের মহেশমাটি এলাকায় ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। যদিও জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে গুলি চালানোর ঘটনা অস্বীকার করছেন স্থানীয়রা।

(Bangla News) এলাকার বাসিন্দাদের দাবি, হঠাৎ করে এসে ওই দুষ্কৃতী গুলি চালায়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। স্থানীয়রা গুলিবিদ্ধ ব্যাক্তিকে উদ্ধার করে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এখনও শরীরের ভেতরে গুলি রয়েছে। মালদহ মেডিক্যালের চিকিৎসকরা তাঁকে কলকাতা রেফার করেছেন।

 পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গুলিবিদ্ধ ব্যক্তির নাম আসগার শেখ (৩৭)। পেশায় মাংস ব্যবসায়ী। বাড়ি মালদহের মহেশমাটি এলাকায়। জানা গিয়েছে, বুধবার গভীর রাত থেকে শহরের মহেশমাটি এলাকায় জুয়ার আসর বসেছিল। প্রায় নিয়মিত মহেশমাটি এলাকায় গোপন ডেরায় জুয়ার ঠেক বসে। এলাকার কিছু যুবক সেখানে জুয়া খেলতে হাজির হয়। ঈদ উপলক্ষে মহেশমাটি এলাকায় একটি মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে।

গভীর রাত পর্যন্ত মঞ্চের আশেপাশে চলছিল জুয়ার আসর। রাতভর সেখানে বেশ কয়েকজন স্থানীয় যুবক জুয়া খেলছিল। বৃহস্পতিবার ভোর নাগাদ তাদের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। বিবাদ প্রথম দফায় মিটে যাওয়ার পরে অভিযুক্ত যুবক বাড়ি গিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে আসে। আসগর শেখের ওপর হামলা চালায়।  অভিযুক্ত যুবক আসগর শেখের পিঠে ঠেকিয়ে এক রাউন্ড গুলি চালায়।

সেখানেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। অন্যরা অভিযুক্তকে হাতেনাতে ধরে বেধড়ক মারধর করে। তারপর সেখান থেকে পালিয়ে যায় সে। রক্তাক্ত অবস্থায় জখম ব্যক্তিকে উদ্ধার করে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে ফায়ার করা বন্দুকের গুলির খোল উদ্ধার হয়েছে।

বর্তমানে ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। তবে ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত যুবক। ইতিমধ্যে তার খোঁজে শহরজুড়ে তল্লাশি অভিযান শুরু হয়েছে পুলিশের। গুলিবিদ্ধ আসগর শেখের পিঠের অনেকটাই ভেতরে ঢুকে রয়েছে। মালদহ মেডিক্যালে অস্ত্রোপচার সম্ভব নয়। তাই তাঁকে কলকাতা রেফার করা হয়েছে। যদিও এলাকায় জুয়া খেলা নিয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি স্থানীয়রা।

এলাকার প্রাক্তন কাউন্সিলার আশিস কুন্ডু বলেন, মহেশমাটি এলাকার এক ব্যক্তিকে হঠাৎ এক জন দুষ্কৃতী গুলি করে পালিয়ে যায়। কী কারণে গুলি চলল তা এখনও জানা যায়নি। ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করলে সমস্ত বিষয় জানা যাবে।