মাকে চ্যালাকাঠ দিয়ে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠলো ছেলের বিরুদ্ধে

মাকে চ্যালাকাঠ দিয়ে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠলো ছেলের বিরুদ্ধে

নেশার টাকা না পেয়ে মাকে চ্যালাকাঠ দিয়ে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠলো ছেলের বিরুদ্ধে। দিনেদুপুরে এমন ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জলপাইগুড়ির রায়পুর চা বাগানে। অভিযুক্ত যুবকের নাম কৃশান চিকবরাইক। তাকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের পাতকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত রায়পুর চা বাগান।

যা বিগত কয়েকবছর ধরে বন্ধ রয়েছে। এই বাগানেরই ভগত লাইনের বাসিন্দা বছর বাইশের ওই যুবক বুধবার দুপুরে তার মাকে মেরে ফেলে বলে অভিযোগ। স্থানীয় বাসিন্দা সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'কৃশান নেশাগ্রস্ত ছিল। আর টাকার জন্য প্রায় প্রতিদিন তার মাকে মারধোর করত। ক'দিন আগে বাড়িতে ওর বোন এসেছিল। বোন চলে যাওয়ার সময় কৃশান হুমকি দেয়, সে গেলেই মাকে মেরে ফেলবে।'

এলাকাবাসীদের দাবি, বুধবার দুপুরে তাকে নেশা করার জন্য পাঁচশো টাকা দিতে হবে এই নিয়ে মা সুন্দরমনি চিকবরাইকের সঙ্গে ঝগড়াঝাটি শুরু করে কৃশান। তিনি টাকা দিতে না চাইলে এরপর ঘরে মজুত থাকা জ্বালানি কাঠের টুকরো দিয়ে তাঁর মাথায় আঘাত করে। তখনই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন।

প্রসঙ্গত, উল্লেখ্য অভিযুক্ত যুবক কৃশান চিকবরাইকের হাতে কয়েকবছর আগে তার বাবা খুন হয়েছিল অভিযোগ। সেই সময় একই কারণে তার বাবাকে কুড়ুল দিয়ে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠেছিল। এরপর অভিযুক্তকে বাড়িতে আটকে রেখে স্থানীয় বাসিন্দারা খবর দেয় পুলিশকে। খবর পেয়ে টিম নিয়ে ছুটে আসেন জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার আই সি।

অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। তার জন্য বেশ কয়েক বছর জেল খেটে ফিরে আসে সে। কিন্তু এতকিছুর পরেও নেশা ছাড়েনি। গতকাল ঘটনার বিষয়টি জানাজানি হতেই অভিযুক্তকে বাড়িতে আটকে রেখে পুলিশে খবর পাঠানো হয়। তড়িঘড়ি বাহিনী নিয়ে ছুটে আসেন জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার আইসি অর্ঘ্য সরকার। অভিযুক্তকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে পুলিশ সুত্রে জানা গেছে।