সপ্তাহান্তে মদ বিক্রিতে রেকর্ড লাভের মুখ দেখল রাজ্য

সপ্তাহান্তে মদ বিক্রিতে রেকর্ড লাভের মুখ দেখল রাজ্য

দোলের সপ্তাহান্তে মদ বিক্রিতে রেকর্ড লাভের মুখ দেখল রাজ্য। চলতি সপ্তাহে শুক্রবার গেল দোল। বৃহস্পতিবার থেকে রবিবার পর্যন্ত মদ বিক্রি হল 200 কোটি টাকার। হিসেব করলে দেখা যায় প্রতিদিন গড়ে 50 কোটি টাকার মদ বিক্রি হয়েছে। যদিও দোলের দিন বিকেল পর্যন্ত দোকান বন্ধ থাকায় সেভাবে বিক্রি না হলেও বৃহস্পতিবার রেকর্ড বিক্রি হয়েছে মদের।

গত বছরের থেকে অনেকটাই বিক্রি বেশি হয়েছে বলেই দাবি আবগারি দফতরের। সবথেকে বেশি বিক্রি হয়েছে বৃহস্পতিবার। ওই দিন বিক্রি 70 কোটি টাকার অঙ্ক ছাড়িয়েছে। এমনটাই খবর নবান্ন সূত্রে।  করোনাকালে অন্য অনেক ব্যবসা মুখ থুবড়ে পড়লেও মদ বিক্রি ফুলেফেঁপে উঠেছিল রাজ্যে। গত দেড় বছরে মদ বিক্রির পরিমাণ ভেঙেছে পুরোনো সব রেকর্ড।

রাজ্যে এহেন বিপুল পরিমাণ মদ বিক্রিতে লাভবান হয়েছে রাজ্য সরকারও। কোষাগারে ঢুকেছে বেশি টাকা। 2017-18 এবং 2018-19 আর্থিক বছরে মদ বিক্রির পরিমাণকে অনেকটাই পিছনে ফেলেছে গত দেড় বছরের মদ বিক্রি। 2020-এর জুন মাস থেকে 2021 সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত মদ বিক্রির থেকে রাজ্যের আয় হয়েছে 23 হাজার কোটি টাকা।

 জানা গিয়েছে, দেশি মদ বিক্রি করেই রাজ্য আবগারি দফতর সবথেকে বেশি আয় করেছে। 2022-এর জানুয়ারি মাসে সমীক্ষায় দেখা যায়, রাজ্যে গত দেড় মাসে যত মদ বিক্রি করা হয়েছে, তার মধ্যে 35 শতাংশই দেশি মদ। দেশি মদের পর সবথেকে বেশি বিক্রি হয়েছে বিয়ার। উল্লেখ্য, গত দেড় বছরে অনেকটা সময়ই করোনার জেরে লকডাউন জারি ছিল।

বন্ধ ছিল মদের দোকান। তা সত্ত্বেও উত্সবের মরশুমে মদ বিক্রি করে সেই লোকশান পুষিয়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন মদ ব্যবসায়ীরা। তবে সার্বিক ভাবে বিদেশি মদের বিক্রি কিছুটা কমেছে বলে জানা গিয়েছে।  অন্যদিকে, মদ বিক্রিকে আরও বাড়াতে এবারে 'ই-রিটেল' এর পরিষেবা নিয়ে হাজির হতে চলেছে রাজ্য। এ ব্যাপারে চারটি সংস্থাকে বাছাই করেছে WEST BENGAL STATE BEVERAGES CORPORATION। ওই সংস্থাগুলির মাধ্যমেই বাড়ির দুয়ারে মদ পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে।