শীতের বিদায় ঘণ্টা বাজিয়ে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে একধাক্কায় বাড়ল তাপমাত্রা

শীতের বিদায় ঘণ্টা বাজিয়ে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে একধাক্কায় বাড়ল তাপমাত্রা

 এ বছরের মতো বিদায় জানাচ্ছে শীতের (Winter) মরশুম। সপ্তাহের মধ্যভাগে রাজ্যে তাপমাত্রা বাড়ল অনেকটা। পারদ চড়ল বিভিন্ন জেলারও। আবহাওয়া অফিসের পরিসংখ্যান বলছে, বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বেড়ে দাঁড়াল ১৫.৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে। সপ্তাহান্তে তা ১৮ ডিগ্রি পর্যন্ত পৌঁছে যেতে পারে। আর সর্বোচ্চ তাপমাত্রার পারদ চড়তে পারে ৩০ ডিগ্রি পর্যন্ত। অর্থাত্‍ শীতল আমেজে ইতি, উষ্ণদিনের হাতছানি। বলা হচ্ছে, দক্ষিণবঙ্গ থেকে পাততাড়ি গোটাচ্ছে শীত।

কথা ছিল, শেষ ধাপে ছক্কা হাঁকাবে। সেইমতো চলতি সপ্তাহের প্রথম দিন থেকে শীত একটু কামড় বসিয়েছিল কলকাতা-সহ (Kolkata) দক্ষিণবঙ্গে। সোমবার সকাল থেকে কাঁপন ধরানো হাওয়া বইছিল। তাতে অনুভূত হচ্ছিল ঠান্ডা। সোয়েটার, টুপিতে নিজেদের মুড়েছিলেন প্রাতঃভ্রমণকারীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রোদ বাড়লেও শীত যে খুব একটা কমেছে, তা নয়।

পরবর্তী দুটো দিনও প্রায় একইরকম আবহাওয়া ছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই একধাক্কায় তাপমাত্রা বাড়ল অন্তত ২ ডিগ্রি। ঝকঝকে রোদের বদলে আকাশ আংশিক মেঘলা, তবে বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। উত্তরবঙ্গে ঠান্ডার অনুভূতি কয়েকদিন স্থায়ী হলেও কলকাতাকে কার্যত বিদায় জানাচ্ছে শীত।

আগামী কয়েকদিনে ২০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে পৌঁছে যেতে পারে তাপমাত্রা। বৃহস্পতিবার বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ৯৯ শতাংশ।  এদিকে, বাংলাদেশে তৈরি হয়েছে ঘূর্ণাবর্ত। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় আংশিক মেঘলা আকাশ হলেও সপ্তাহান্তে বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই।

আগামী তিন থেকে চার দিনে বঙ্গের গড় তাপমাত্রা ২ থেকে ৩ ডিগ্রি বাড়বে বলে অনুমান। আগামী দু'দিনে দিল্লি, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়ে ঘন কুয়াশার সর্তকতা রয়েছে। তবে এ বছর শীত একটু লম্বা ইনিংস খেলে গেল বলেই মত আবহাওয়াবিদদের। ধাপে ধাপে তাপমাত্রা বাড়তে থাকায়, ঋতু পরিবর্তনের আমেজও বেশ ভাল টের পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন তাঁরা।