জ্ঞানবাপী মসজিদে জারি থাকবে ভিডিও সার্ভে, জানিয়ে দিল আদালত

জ্ঞানবাপী মসজিদে জারি থাকবে ভিডিও সার্ভে, জানিয়ে দিল আদালত

বারাণসীর (Varanasi) কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের পাশে অবস্থিত জ্ঞানবাপী মসজিদের (Gyanvapi Mosque) ভিতরে ভিডিও সার্ভে অব্য়াহত থাকবে। বৃহস্পতিবার এমনই নির্দেশ স্থানীয় আদালতের। গত শুক্রবার এই সার্ভে শুরু হলেও তা বাধাপ্রাপ্ত হয়। মসজিদের ভিতরে ভিডিও সার্ভে চালানো নিয়েই তৈরি হয়েছিল সমস্যা। এই পরিস্থিতিতে আদালত জানিয়ে দিল, এই সার্ভে চালানো যাবে।

তবে আদালত জানিয়েছে ১৭ মে’র মধ্যে সার্ভের রিপোর্ট জমা দিতে হবে। এবং ওই সার্ভের দায়িত্বে থাকা কমিশনার অজয় মিশ্রকেও সরানো হবে না বলে জানিয়েছে আদালত। তবে ওই কমিশনারের সঙ্গে আরও একজনকে যুক্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  উল্লেখ্য, জ্ঞানবাপী মসজিদ চত্বরে মা শৃঙ্গার গৌরী স্থলে পুজো করার আবেদন জানিয়েছিলেন পাঁচজন মহিলা।

গত একবছর ধরেই ওই অঞ্চলটি খুলে দেওয়া হয়েছে প্রার্থনা করার জন্য। কিন্তু ওই মহিলাদের আবেদন ছিল, তাঁরা চান ওই পুরনো মন্দির চত্বরের অন্যান্য দেববিগ্রহের সামনেও প্রার্থনা করতে। গত এপ্রিলে এই বিষয়ে একটি তদন্তের নির্দেশ দেয় আদালত।  গত শুক্রবারই মসজিদের ভিতরে শুরু হয়েছিল ভিডিও সার্ভে। কিন্তু এই ভিডিও সার্ভেতে আপত্তি তোলেন মসজিদ কমিটির সদস্য ও তাদের আইনজীবীরা।

তাঁরা জানান, মসজিদের মধ্যে কোনও রকম ভিডিওগ্রাফি করা যাবে না। কিন্তু পিটিশন দাখিলকারীদের আইনজীবীরা বলেন, তাঁরা যা করছেন আদালতের নির্দেশ মেনেই। সেই মামলারই শুনানি ছিল। ভিডিও সার্ভে অব্যাহত রাখার নির্দেশে নিঃসন্দেহে ‘জয়ী’ হলেন হিন্দুত্ববাদীরা। প্রসঙ্গত, কাশী বা বারাণসীর বিখ্যাত বিশ্বনাথ মন্দিরের গায়েই রয়েছে জ্ঞানবাপী মসজিদ।

ঐতিহাসিকদের একাংশের মতে, একাধিকবার বিদেশি হানাদারদের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় মন্দিরটি। ১৬৬৯ সালে মূল মন্দিরটি দখল করে জ্ঞানবাপী মসজিদ তৈরি করেন মোঘল বাদশাহ ঔরঙ্গজেব। এখনও মসজিদের দেওয়ালে হিন্দু দেবদেবীর ছবি দেখা যায়। অষ্টাদশ শতকে হিন্দুদের আবেগকে মান্যতা দিয়ে মসজিদের কাছেই আজকের বিশ্বনাথ মন্দিরটি তৈরি করেন মারাঠা রাজ্য মালওয়ার রানি অহল্যাবাই হোলকর।