এবার রাজ্যের পুরোহিতদের জন্য ভাতা দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

এবার  রাজ্যের পুরোহিতদের জন্য ভাতা দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

আজবাংলা     পুজোর মাস থেকে এবার পুরোহিতরাও পাবেন ভাতা। সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের। এ দিন তিনি জানান, পুজোর মাস থেকে পুরোহিতদের ভাতা দেওয়া হবে। রাজ্যে প্রায় ৮ হাজার দরিদ্র পুরোহিত এখনও পর্যন্ত আবেদন করেছেন। একুশে নির্বাচনের আগে পুরোহিতদের ভাতা দেওয়ার ঘোষণা করে মমতা কার্যত মাস্টারস্ট্রোক দিলেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

এর আগে ইমামদের ভাতা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। যা নিয়ে বিরোধীদের কটাক্ষ, একটি বিশেষ সম্প্রদায়কে তোষণ করছেন মমতা। এই ইস্যু নিয়ে গত নির্বাচনেও মমতাকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করে বিজেপি।এ দিন সাংবাদিক বৈঠকে পুজো উদ্যোক্তাদের উদ্দেশে মমতা পরামর্শ, এবার পুজোর প্যান্ডেলের একাংশ খুলে রাখুন।

গ্লোবাল অ্যাডভাইসরি কমিটির সঙ্গে বৈঠক হয়। তাদের পরামর্শ, প্যান্ডেল পুরো না ঢেকে খোলা রাখতে। যাতে জীবাণু থাকলে বেরিয়ে যাবে। উল্লেখ্য, মতুয়াদের মন রাখতে এ দিন মতুয়া ডেভালপমেন্ট বোর্ড গঠনের নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। মরণকালে হরি নাম করছেন মুখ্যমন্ত্রী! পুরোহিতদের ভাতা নিয়ে পাল্টা ময়দানে নামল বিজেপি।

সাংবাদিক বৈঠকে বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা বলেন, "জয় শ্রীরাম শুনলে যে মুখমন্ত্রী রেগে যেতেন, এখন তিনিই রামায়ন, মহাভারত, বৈষ্ণব পদাবলী নিয়ে মেতে উঠেছেন। বিদায়ের শেষ লগ্নে এসব কথা মনে পড়ছে তাঁর।"পাশাপাশি মমতার ঘোষণা, বিষ্ণুপুর সংগ্রহশালায় থাকা সংস্কৃত নথি ডিজিটাল ফরম্য়াটে পুনরুদ্ধার করা হবে।

বহু লুপ্ত প্রায় নথি এবার জীবন পাবে। জীর্ণ মন্দির-মসজিদের সংস্কারের কাজ হবে। রাজ্যে সনাতনী ধর্মের তীর্থস্থান তৈরি হবে বলে জানান মমতা। তবে, রাহুলের কটাক্ষ, মিথ্যাচারে মুখ্যমন্ত্রী বিশ্ব রেকর্ড গড়ছেন। আয়ু তো মাত্র ছয় মাস। এতদিন মনে পড়েনি। বিদায়কালে দরাজ হয়ে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এক নজরে দেখে নিন  সাংবাদিক বৈঠকে কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী

• বিজেপি করোনাকেও গুরুত্ব দিচ্ছে না।

• দিল্লির হিংসায় কী কী হয়েছিল সকলে জানেন। আন্দোলনকারীদের উপরে হামলা চালানো হয়েছিল। যা হয়েছে ঠিক হয়নি।

• পুজোর মাস থেকেই ৮ হাজার পুরোহিতকে ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত মুখ্যমন্ত্রীর।

• রাজ্যে সনাতনী ধর্মের তীর্থস্থান হবে। সে রাজ্য জমি দিচ্ছে বলে জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

• দলিত সাহিত্য অ্যাকাডেমি গঠনের সিদ্ধান্ত মুখ্যমন্ত্রীর।

• রাজ্যে হিন্দি অ্যাকাডেমি গঠনের সিদ্ধান্ত।

• ডেঙ্গি এবং ম্যালেরিয়ার ব্যাপারেও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে, বললেন মুখ্যমন্ত্রী।

• এখন অনেকে বলছে করোনা চলে গেছে। কিন্তু এ ভাবে একটা অতিমারি যায় না। দ্বিতীয় বার সংক্রমণের ঢেউ আসতে পারে। বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

• রাজ্যে অক্সিজেন বেড ১২ হাজারের বেশি।

• করোনায় মৃত্যুর হার ৯ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১.৯৪ শতাংশতে আনা হয়েছে। দাবি মুখ্যমন্ত্রীর।

• রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগী ২৩ হাজার ৬২৪ জন।

• রাজ্যে ৮৬ শতাংশ করোনা রোগীর মৃত্যু কো-মর্বিডিটির কারণে।

• কো-মর্বিডিটি কথাটা শুনে প্রথমে অনেকে ব্যঙ্গ করেছিলেন। কিন্তু পরে সারা দেশ মেনে নিয়েছে। বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।