এবার বাড়িতে বসেই পেয়ে যাবেন জম্মুর কাটরার বিখ্যাত বৈষ্ণোদেবী মন্দির প্রসাদ

এবার বাড়িতে বসেই পেয়ে যাবেন  জম্মুর কাটরার বিখ্যাত  বৈষ্ণোদেবী মন্দির প্রসাদ

আজবাংলা     করোনা ভীতি কাটিয়ে দীর্ঘ চারমাস পর খুলেছে জম্মুর কাটরার বিখ্যাত বৈষ্ণোদেবী মন্দির। কিন্তু ট্রেন পরিষেবা এখনও বন্ধ। হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি কোভিড স্পেশাল ট্রেন চালাচ্ছে রেল। ফলে দর্শনার্থীরা বৈষ্ণোদেবী দর্শনে যেতে সমস্যায় পড়ছেন। অপরদিকে জম্মু-কাশ্মীর সরকারও চাইছে না কাশ্মীরের বাইরে থেকে দলে দলে তীর্থযাত্রীরা আসুন কাটরায়।

ফলে কম সংখ্যক তীর্থযাত্রীদেরই অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।২৬ আগস্ট থেকে হেলিকপ্টার বুকিংও শুরু হয়ে গিয়েছে। তবে মহামারীর কথা মাথায় রেখে এবার জম্মু ও কাশ্মীরের বাইরে থেকে খুব বেশি তীর্থযাত্রীকে দর্শনের অনুমতি দেওয়া হবে না। অবশ্য যাঁরা যেতে পারবেন না তাঁদের জন্য স্পিড পোস্টের মাধ্যমে বাড়িতে প্রসাদ পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে এবার ঘরে বসেই বৈষ্ণোদেবীর দর্শন করার ব্যবস্থা করল মন্দির কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি চাইলে বাড়িতেই স্পিড পোস্টের মাধ্যমে প্রসাদ পৌঁছে দেবে তাঁরা। শ্রী মাতা বৈষ্ণোদেবী মন্দির কমিটি জানিয়েছে, কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে তাঁরা এবার থেকে সারা দেশেই প্রসাদ পৌঁছে দেবে দেবে। ভারতীয় ডাকবিভাগের সঙ্গে এই বিষয়ে মন্দির কর্তৃপক্ষ যুক্ত হয়েছে।

স্পিড পোস্টের মাধ্যমেই এবার ইচ্ছুকদের বাড়িতে পৌঁছে যাবে মাতা বৈষ্ণোদেবীর প্রসাদ।এর জন্য কোনওরকম লাভ রাখা হবে না (No profit, No loss) বলেও জানিয়েছে মন্দির কমিটি। উল্লেখ্য, আগেই অনলাইনে মন্দির দর্শন, যজ্ঞে আহুতি দেওয়ার ব্যবস্থা করেছিল মাতা বৈষ্ণোদেবী মন্দির কমিটি। এবার থেকে বৈষ্ণোদেবীর প্রসাদ নিতে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা মন্দির কমিটির অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে লগ ইন করে প্রসাদের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

আবার ৯৯০৬০১৯৪৭৫  নম্বরে ফোন করেও আবেদন করা যেতে পারে। পাশাপাশি ১০ বছরের কম বয়সি শিশু, অন্তঃসত্ত্বা মহিলা, ৬০ বছরের বেশি বয়সি এবং কো-মর্বিডিটি রয়েছে, এমন মানুষদের এবারের মতো তীর্থ না যাওয়ারই পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।বৈষ্ণোদেবী ছাড়াও জম্মুতে আরও কয়েকটি গুরুত্বপূ্র্ণ মন্দিরের দরজা খুলে দেওয়া হয়েছে। সেগুলির মধ্যে হল, বাহু ফোর্টের মহাকালী মন্দির, জম্মু অসমারিক সচিবালয়ের কাছে ঐতিহাসিক শিব মন্দির ও শহরের জনপ্রিয় রঘুনাথ মন্দির।এছাড়া নাগরোটার কোল কাণ্ডোলী মন্দিরের দরজা