মালদায় নাবালিকা স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ এলাকার তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে

মালদায় নাবালিকা স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ এলাকার তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে

 রতুয়া:    এক স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ। অভিযোগ এলাকারই তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে। অভিযুক্তরা শাসকদলের ঘনিষ্ট হওয়ায় ব্যবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ দাবি নাবালিকার পরিবারের। মালদার রতুয়া থানা এলাকার দেবীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মাকাইয়া গ্রামের ঘটনা।ধর্ষিতার পরিবারের অভিযোগ পার্শ্ববর্তী গ্রাম বালুপুর এলাকার বাসিন্দা রহিমুল হক, টিউশনি পড়তে যাওয়ার সময় ওই নাবালিকাকে জোরপূর্বক গাড়িতে তুলে নেয়।

এরপর মাদক খাইয়ে রহিমুল এবং তার দুই সঙ্গী মোট তিনজন মিলে ওই নাবালিকাকে সারাদিন ধর্ষণ করে। এরপর গ্রামে ফেলে রেখে চলে যায়। অচৈতন্য অবস্থায় কোনরকমে ওই নাবালিকা বাড়িতে আসে। একটু সুস্থ হলে সমস্ত ঘটনা তার পরিবারের সদস্যদের জানায়।এরপরই পরিবারের সদস্যরা রতুয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

মূল অভিযুক্ত শাসকদলের ঘনিষ্ঠ হওয়ার ব্যবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ অভিযোগ পরিবারের।ঘটনার পর থেকেই ৩ অভিযুক্ত এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে।গোটা ঘটনা নিয়ে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবিতে আন্দোলনে নামার হুমকি দিয়েছে বিজেপি।এদিকে অভিযুক্তরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় নির্যাতিতার পরিবার ও এলাকাবাসী অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবিতে রতুয়া ভালুকা রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে।

ঘটনাস্থলে ছুটে আসে রতুয়া থানার পুলিশ।তাদের দাবি অভিযুক্ত গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবে। এদিকে জেলা বিজেপি সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল বলেন, যেহেতু রাজ্যের শাসকদলের ঘনিষ্ঠ অভিযুক্তরা সেই কারণেই পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছে না। জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে কে কি করেছে তার দায় তৃণমূল নেবে না। এধরনের ঘটনা কেউ ঘটিয়া থাকলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা যাতে প্রশাসন ও পুলিশ নেয় তা দেখবে দল।