অভিষেকের গড়ে বড় ধাক্কা তৃণমূলের, দল ছাড়লেন আরও এক বিধায়ক

অভিষেকের গড়ে বড় ধাক্কা তৃণমূলের, দল ছাড়লেন আরও এক বিধায়ক

তৃণমূলে ফের বড় ধাক্কা। খোদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের কেন্দ্রেই এবার বড় ধাক্কা খেল দল।  রবিবাসরীয় দুপুরে ডুমুরজলার সমাবেশ থেকে তৃণমূলের উদ্দেশে হুঙ্কার দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। বলেছিলেন, ফেব্রুয়ারির ২০ তারিখের মধ্যে কলকাতা আর দক্ষিণ ২৪ পরগনায় তৃণমূলকে ফাঁকা করে দেবেন। 'তৃণমূল কোম্পানি করার মতো লোক থাকবে না।' সেই কথা বলার ২৪ ঘণ্টা কাটল না।শুভেন্দুর হুঁশিয়ারির পরদিন-ই তৃণমূল ছাড়লেন ডায়মন্ডহারবারের বিধায়ক দীপক হালদার (Dipak Halder)।

দল ছাড়ার চিঠি ইতিমধ্যেই স্পিড পোস্টে  তৃণমূল ভবনে ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা সভাপতি শুভাশিস চক্রবর্তীর বাড়ির ঠিকানায় পাঠিয়ে দিয়েছেন দলত্যাগী বিধায়ক। বেশ কিছুদিন 'বেসুরো' ছিলেন বিধায়ক।বিগত কয়েকদিন ধরেই দলীয় কোনও কর্মসূচিতে দেখা যায়নি দীপক হালদারকে (Dipak Halder)। যোগ দিচ্ছিলেন না কোনও সভাতেই। ডায়মন্ডহারবার সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের কুলতলির সভায় অনুপস্থিত থাকেন তিনি। অনুপস্থিত ছিলেন অভিষেকের ডায়মন্ডহারবারের সভাতেও। আর তা থেকেই জল্পনা ছড়ায় যে এবার হয়তো বিধায়ক দীপক হালদারও তৃণমূল (TMC) ছাড়তে চলেছেন। সেই জল্পনা-ই এবার সত্যি হল। ঘাসফুল শিবির ত্যাগ করলেন ডায়মন্ডহারবার বিধায়ক দীপক হালদার।

ওয়াকিবহল মহলের মতে, 'বেসুরো' বিধায়কের বিজেপিতে (BJP) যোগদান এবার হয়তো সময়ের অপেক্ষা! যদিও দলত্যাগী বিধায়ক তাঁর পরবর্তী রাজনৈতিক পদক্ষেপ সম্বন্ধে এখনও নির্দিষ্ট করে কিছু ঘোষণা করেননি। তবে তৃণমূলের (TMC) অন্দরে বিধায়ক দীপক হালদার (Dipak Halder), শোভন চট্টোপাধ্যায় ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত ছিলেন। আবার শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গেও তাঁর সুসম্পর্ক রয়েছে।

এখন রবিবারই হাওড়ার ডুমুরজলা স্টেডিয়ামে বিজেপির মেগা যোগদান মেলা থেকে শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) হুঁশিয়ারি দেন, "২ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কলকাতা আর দক্ষিণ ২৪ পরগণা আরও ফাঁকা করব। তৃণমূল কোম্পানি গড়ার জন্য আর লোক থাকবে না।" আর তার পরদিনই দলত্যাগ করলেন বিধায়ক দীপক হালদার।

ফলে বিধায়কের বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা নিয়ে আরও উস্কে উঠেছে জল্পনা। যদিও এপ্রসঙ্গে বিজেপি (BJP) নেতা জয়প্রকাশ মজুমদারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, "উনি যে কেন্দ্রের বিধায়ক, সেখানকার সাংসদ তো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়। অভিষেক ব্যানার্জি তো এখন দলের সর্বময় কর্তা।

তাই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে আগে প্রশ্ন করা উচিত যে, উনি দল কেন ছাড়ছেন? আর উনি তো এখনও বিজেপিতে আসার ব্যাপারে কিছু ঘোষণা করেননি, আগে ঘোষণা করুক, তারপর দল ভেবে দেখবে। এখন উনি যদি বিজেপির নীতি মেনে চলতে পারেন, তাহলে অবশ্যই স্বাগত।" প্রসঙ্গত বলে রাখি, ২০১৫ সালে তৃণমূল দীপক হালদারকে একবার দল থেকে সাসপেন্ড করেছিল।