পাকিস্তানি আবিদ আলী খানকে ধরতে ২ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার ঘোষণা আমেরিকার

পাকিস্তানি আবিদ আলী খানকে ধরতে ২ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার ঘোষণা আমেরিকার

মধ্যপ্রাচ্য এবং দক্ষিণ -পশ্চিম এশিয়া থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়িজমাতে ইচ্ছুক অননুমোদিত অভিবাসীদের ভ্রমণের সুবিধার্থে মানব পাচারকারী আবিদ আলী খানের পরিচালিত একটি নেটওয়ার্ক বন্ধ করতে চায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এ লক্ষ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছে। দেশটির স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র নেড প্রাইস আজ বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

১০লাখ ডলার মূল্যের দুটি পুরস্কারের মধ্যে প্রথমটি হল খানকে গ্রেপ্তার ও দোষী সাব্যস্ত করার তথ্যের জন্য। এবং দ্বিতীয় ১০লাখ ডলার দেওয়া হবে খানের মানব চোরাচালান নেটওয়ার্কের আর্থিক বিঘ্ন ঘটানো যায় এমন তথ্যের জন্য। নেড প্রাইস আরো বলেন, আলি খানের মতো চোরাচালানকারী সংগঠন আর্থিক ভাবে দুর্বল জনসংখ্যার সুবিধা গ্রহণ করে।

উচ্চ ঝুঁকি নিয়ে পাচার করা ব্যক্তিদের মারাত্মকভাবে বিপন্ন করে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করা ব্যক্তিরা প্রায়ই দক্ষিণ ও মধ্য আমেরিকা দিয়ে বিপজ্জনক রাস্তায় ভ্রমণ করতে বাধ্য হয়। এর মধ্যে অনেক দিন ধরে হাঁটা অন্যতম। সামান্য খাবার ও জলের সঙ্গে কঠিন ভূখণ্ড পাড়ি দেওয়ার সময় ডাকাতি এবং অপব্যবহারের শিকার হতে হয় তাদের।

২০২১ সালের এপ্রিল মাসে, বিচার বিভাগ আলী খানের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করে, চোরাকারবারী করে অবৈধভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের জন্য ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করা হয় তার বিরুদ্ধে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পাচারকারী এবং তার চোরাচালানকারী নেটওয়ার্কের বিরুদ্ধে ট্রেজারি বিভাগের নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পুরস্কারটি স্টেট ডিপার্টমেন্টের ট্রান্সন্যাশনাল অর্গানাইজড ক্রাইম রিওয়ার্ডস প্রোগ্রামের (টিওসিআরপি) অধীনে দেওয়া হবে। এ প্রোগ্রামের আওতায় এ পর্যন্ত ১৩৫ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।  ১৯৮৬ সালে প্রোগ্রাম শুরু হওয়ার পর থেকে ৭৫ জনেরও বেশি আন্তর্জাতিক অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা হয়েছে।