জেনে নিন চকলেট সম্বন্ধে অচেনা অজানা তথ্য

জেনে নিন চকলেট সম্বন্ধে অচেনা অজানা তথ্য

আজবাংলা  আমরা কমবেশি সকলেই চকলেট খেতে ভালবাসি। চকলেটের নাম শুনলেই জিভে আসে জল। এখন মানুষ শুধু চকলেটেই থেমে নেই, চকলেট দিয়ে তৈরি হচ্ছে নানা কেক, পেস্ত্রি, আইসক্রিম ইত্যাদি। ছোটদের সব থেকে প্রিয় খাবার চকলেট।

এখন আবার চকলেট দিয়ে তৈরি হচ্ছে নানান মিষ্টিও। তবে, চকলেট নিয়ে আমাদের এত মাতামাতি থাকলেও আমরা প্রায়ই অনেকেই বিশেষ কিছুই জানি না চকলেটের বিষয়ে। আসুন এমনই কিছু তথ্য জেনে নেওয়া যাক চকলেটের বিষয়ে।

১} দাঁত খারাপ করে না চকলেট। দাঁতে পোকা লাগে এক ব্যাক্টেরিয়ার জন্য যে চিনিকে অ্যাসিড বানিয়ে দেয়, আর তাই দাঁতে ক্যাভিটি লাগে। কোকোতে থাকা এন্টিব্যাকটেরিয়াল পদার্থ দাঁতের জন্য ভালো। তার মানে এই নয় আপনি রোজ চকলেট খাবেন।

২} গোটা পৃথিবীতে চকলেটের ৫০০র চেয়ে বেশি ফ্লেভার পাওয়া যায়।

৩} চকলেট কিন্তু সবজি। আসলে কোকো গাছ সেই প্রজাতিতে পরে যেই প্রজাতি ঢেঁড়শ বা তুলো জন্ম দেয়।

৪} কোকো গাছ লাগানো সোজা নয় কিন্তু। একটা গোটা বছর লাগে কোকো গাছকে ১০টা ছোট চকলেট বার তৈরী করার মতো কোকো জন্ম দিতে।

৫} কোকো গাছকে অমর বলা হয়। কোকো গাছ ২০০ বছর পর্যন্ত বাঁচতে পারে, কিন্তু আজব কথা শুধু ২৫ বছরই বিন্স জন্ম দিতে পারে।

৬} সাদা চকলেট আসলে চকলেট না। চকলেটের প্রধান উপাদান হলো কোকো, কোকো বিন্স, যেহেতু সাদা চকলেট তো ক্রিম বা দুধ দিয়ে তৈরী হয়, যাতে ১০ শতাংশেরও কম চকলেট লিকার থাকতে পারে।

৭} প্রথম চকলেট বার ১৮৪২ এ প্রথম চকলেট বার নির্মাণ করা হয়েছিল।

৮} জন্তু জানোয়ারদের চকলেট খাওয়ানো উচিত নয়। কারন, জন্তুদের জন্য চকলেট মারাত্বক হতে পারে। কেননা কোকোতে থিওব্রোমাইন করে একটি পদার্থ থাকে যা পোষা জন্তুদের জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে। মানুষেরা এই পদার্থ হজম করে নেয় কিন্তু জন্তুদের জন্য এটি বিষাক্ত হতে পারে।