স্ত্রী ও মেয়েকে তৃণমূল নেতার মারধরের ভিডিও ভাইরাল হতেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল দলে

স্ত্রী ও মেয়েকে তৃণমূল নেতার মারধরের ভিডিও ভাইরাল হতেই  তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল  দলে

আজবাংলা    বুধবার জগত্‍বল্লভপুর পঞ্চায়েত সমিতির বিদ্যুত্‍ কর্মাধ্যক্ষ ও স্থানীয় তৃণমূল নেতা মইনুল হোসেন মোল্লার প্রোফাইল থেকে স্ত্রী এবং মেয়েকে মারধরের এই ছবি পোস্ট হয়। সেখানে লেখা ''স্ত্রী এবং মেয়েকে মারধর করছি।কেমন লাগছে বন্ধুরা?''

অভিযোগ, নিজের স্ত্রী ও মেয়েকে মারধরের বেশ কয়েকটি ভিডিও সমেত এই লেখা বুধবার নিজের 'পালোয়ান গামা' প্রোফাইল থেকে শেয়ার করেন তিনি। মুহূর্তের মধ্যে সেই পোস্ট ভাইরাল হতে থাকে। প্রচুর মানুষ শেয়ার করতে শুরু করেন মইনুলের পোস্ট। সমালোচনার ঝড় ওঠে সর্বত্র।

এর কিছুক্ষণের মধ্যেই তিনি পোস্টটি সরিয়ে দেন। কিন্তু ততক্ষণে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে সেটি। রাজনৈতিক মহলে শুরু হয় গুঞ্জন। এরপরই স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যান ওই তৃণমূল নেতা। বন্ধ হয়ে যায় তাঁর মোবাইল ফোনটিও। বারবার চেষ্টা করেও ওই তৃণমূল নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, মইনুল তার স্ত্রীকে প্রায়ই মারধর করেন। বারবার তাকে বলা সত্ত্বেও তিনি নিজেকে শোধরাননি। স্থানীয় শংকরহাটি দু' নম্বর পঞ্চায়েতের উপপ্রধান এবং মইনুলের প্রতিবেশী বলেন, ''একটা দায়িত্বশীল পদে থেকে তিনি যেভাবে বাড়ির লোককে মারধর করেছেন তা মেনে নেওয়া যায় না।

এতে সাধারণ মানুষের কাছে বিরূপ প্রতিক্রিয়া হবে।'' অন্যদিকে, জগত্‍বল্লভপুর পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি শেখ মহম্মদ ইব্রাহিম বলেন, ''এই ঘটনায় ধিক্কার জানাচ্ছি আমরা। পরিবারের লোকজনকে যেভাবে মারধর করা হয়েছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয়। আমরা এর বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।''