দেশের তাপপ্রবাহের সতর্কতা, ৪৫ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলতে পারে বহু জায়গা

দেশের তাপপ্রবাহের সতর্কতা, ৪৫ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলতে পারে বহু জায়গা

উষ্ণতম গ্রীষ্মকাল চলছে ভারতে— মৌসম ভবন ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছে। এ বার তারা কিছুটা উদ্বেগের কথাও শোনাল। গত কয়েকদিন ধরেই দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে তাপপ্রবাহ এমনকি গরমে মৃত্যুর খবর এসেছে। বৃহস্পতিবার ভারতীয় আবহাওয়া দফতর জানাল আরও পাঁচদিন এই তাপপ্রবাহ জারি থাকবে দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যে।

এমনকি ওই রাজ্য গুলিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রিও ছাড়াতে পারে বলে আশঙ্কা মৌসম ভবনের। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, দেশের অধিকাংশ রাজ্যেই এই তাপপ্রবাহ চলতে পারে আগামী পাঁচদিন। এ সংক্রান্ত বিবৃতিতে মৌসম ভবন জানিয়েছে, আগামী পাঁচদিনে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বাড়তে পারে উত্তর-পশ্চিম ভারতে।

তবে আবহাওয়া দফতরের আশ্বাস পাঁচদিন পরে ওই সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমবেও।  আপাতত রাজস্থান, দিল্লি, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ এবং ওড়িশায় ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছতে পারে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। আবহাওয়া বিজ্ঞানী জেনামানি জানিয়েছেন, চূড়ান্ত গরমের এই পরিস্থিতি মে মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত চলবে।

তারপর অবশ্য বৃষ্টির সম্ভাবনা বাড়বে বলে আশা দিয়েছেন জেনামানি। ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ-সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি ছাড়িয়েছে। দিল্লিতে বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪৩ ডিগ্রি। শুক্রবার এই তাপমাত্রা আরও এক ধাপ বেড়ে ৪৪ ডিগ্রি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। গরমে হাঁসফাঁস দশা কাশ্মীরেও।

জম্মুতে তাপমাত্রার পারদ বৃহস্পতিবার ৪০ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলেছে। দেখা দিয়েছে জলের সমস্যাও।  এ দিকে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বিদ্যুতের চাহিদাও। চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় তৈরি হচ্ছে বিদ্যুতের ঘাটতি। সামাল দিতে এই গরমের মধ্যেই নিয়ম করে কয়েক ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।