পূর্ব বর্ধমানে টিউবওয়েল থেকে এক নাগাড়ে বেরিয়ে আসছে জল

পূর্ব বর্ধমানে  টিউবওয়েল থেকে  এক নাগাড়ে বেরিয়ে আসছে জল

তাজ্জব ঘটনা পূর্ব বর্ধমানে । কলের হ্যান্ডেলে হাত লাগাতেই হচ্ছে না। টিউবওয়েলের মুখ দিয়ে এক নাগাড়ে বেরিয়ে আসছে জল। শুক্রবার পূর্ব বর্ধমান জেলার আউশগ্রাম ২ ব্লকের জামতাড়া গ্রামে ঘটেছে এমনই ঘটনা। যা দেখে হতবাক এলাকার বাসিন্দারা। খবর পেয়ে আশপাশের গ্রাম থেকে অনেকেই টিউবওয়েলটি দেখতে আসেন।

একেবারে যেন সাবমার্সিবল পাম্পের মতই তীব্র বেগে জল নিজে থেকেই মাটির তলা থেকে উঠে আসছে। খবর পেয়ে আশপাশের গ্রাম থেকে অনেকেই টিউবওয়েলটি দেখতে আসেন। একেবারে যেন সাবমার্সিবল পাম্পের মতই তীব্র বেগে জল নিজে থেকেই মাটির তলা থেকে উঠে আসছে।  স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জামতাড়া গ্রামের বাসিন্দা পেশায় কৃষক মহম্মদ হানিফের বাড়ির টিউবওয়েল থেকে এভাবেই নিজে থেকে জল বেরিয়ে আসছে। কাউকে টিউবওয়েল পাম্প করতে হচ্ছে না।

হ্যান্ডেলে হাত পর্যন্ত লাগাতে হচ্ছে না। গৃহকর্তা জানান, বছর দু’য়েক আগে তিনি টিউবওয়েলটি বসান। তাতে ভালই জল ওঠে। তবে টিউবওয়েলের যেমন নিয়ম হ্যান্ডেল টিপে জল তোলা সেভাবেই অভ্যস্ত ছিলেন মহম্মদ হানিফরা। মহম্মদ হানিফের কথায়, “শুক্রবার হঠাৎ দুপুর নাগাদ লক্ষ্য করি আমার কলের হ্যান্ডেলে কেউ হাতই দেয়নি অথচ সেখান থেকে ক্রমাগত জল বের হচ্ছে।

যেমন পরিষ্কার পানীয় জল হয় তেমনই জল।” এদিন মহম্মদ হানিফের বাড়ির পাশে এক কৃষকের কাছে ধান কিনতে যান শেখ মোজাম্মেল নামে এক ধান্য ব্যবসায়ী। তিনি বলেন, “একেবারে ভূতুড়ে কাণ্ড। এমন তাজ্জব ঘটনা আগে দেখিনি।” তবে স্থানীয় বাসিন্দা ভাল্কি অঞ্চল তৃণমূল সভাপতি অরূপ মির্ধার দাবি,” এমন ঘটনা এর আগেও ঘটেছিল।আমাদের ধারনা জামতাড়া গ্রামের ওই জায়গায় জলস্রোতের বৈশিষ্ট্যের কারণেই এমন ঘটছে। অলৌকিক কিছু নয়।”