ধেয়ে আসছে তুমুল বৃষ্টি, হু হু করে নামবে তাপমাত্রা

ধেয়ে আসছে তুমুল বৃষ্টি, হু হু করে নামবে তাপমাত্রা

আজ বাংলা:  নভেম্বর মাসের মাঝ সপ্তাহ পড়ে গিয়েছে তবুও ঠাণ্ডার দেখা নেই। যদিও আবহাওয়া দফতর (Weather office) জানিয়েছে, ঘূর্ণাবর্তের জেরে বাংলার তাপমাত্রায় কনকনে শীতের প্রবেশ ঘটতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে। মাঝ নভেম্বরের পর থেকে ঠাণ্ডা কামড় বসাতে পারে।


আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, ঘূর্ণাবর্ত দুর্বল হয়ে গেলেও, দেশে প্রবেশ করেছে পশ্চিমি ঝঞ্ঝা। আর যার ফলে বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গে রয়েছে সামান্য বৃষ্টির সম্ভাবনা। শুক্রবার থেকে দক্ষিণবঙ্গে হতে পারে অল্প পরিমাণে বৃষ্টি।

এদিকে উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং এবং দক্ষিণবঙ্গের কলকাতা, পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণাতে রয়েছে বৃষ্টির সম্ভাবনা। বৃষ্টিতেই নামবে তাপমাত্রার পারদ। জাঁকিয়ে বসবে শীত।

শীতের শুরুতে বেশ ঠাণ্ডা পড়লেও, এখন ঠাণ্ডা পড়ার খুব একটা লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। সেইসঙ্গে বেলার দিকে বাড়ছে তাপমাত্রাও। বৃষ্টির সঙ্গে সঙ্গেই হাড়কাপানো শীতের প্রবেশ হবে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। বাংলার উত্তরে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোনও বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। আবহাওয়ার কোন পরিবর্তন হবে না।

যদিও বৃহস্পতিবার হাওড়া, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগণায় সামান্য পরিমাণে রয়েছে বৃষ্টির আশঙ্কা। এর জেরে দিনের তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে।

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে উত্তর–পশ্চিম ভারতে কিছু রাজ্যে তুষারপাত ও বৃষ্টিপাত— দুটোই হয়েছে। আবহবিদদের অনুমান, এর প্রভাবে বেশ কিছু রাজ্যের তাপমাত্রা কমবে। মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও সিকিমে আগামী ৪–৫ দিনের মধ্যে প্রায় ৪ ডিগ্রি নামতে পারে তাপমাত্রা।

এর কারণ, বৃহস্পতিবার নাগাদ আরও একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢুকবে আবহাওয়ার পরিমণ্ডলে। এর ফলে উত্তরি হাওয়ার দাপট অনেকটা বাড়বে। তার ওপর সপ্তাহের শেষে রাজ্যে বৃষ্টিপাতেরও সম্ভাবনা রয়েছে।