সিঁড়ির নীচে কী রাখা যায় এবং কী রাখা যায় না

সিঁড়ির নীচে কী রাখা যায় এবং কী রাখা যায় না

 জন্মছকে শুক্র গ্রহ নির্দেশ করে ভালবাসা, সম্পর্ক, আকর্ষণ, অর্থ, বিদ্যা, রসায়নবিদ্যা, চিকিৎসা, এ ছাড়া বিপরীত লিঙ্গের রূপের আকর্ষণ ঘটায় শুক্র, সঙ্গীত বা কোনও শিল্প ও শিল্পসত্তা, শারীরিক ক্ষেত্রে কিডনি, মূত্র সম্পর্কিত সমস্যা, গলা এবং সাধারণ শারীরিক সমস্যা নির্দেশ করে শুক্র।

শুক্র গ্রহ বিবাহের ভাবকে প্রভাব বিস্তার করে। বিবাহের সঙ্গে যদি একটি শুভ শুক্র গ্রহের যোগ হয়, দাম্পত্য জীবন হয় খুব সুখের। এ বার আসুন জেনে নেওয়া যাক শুক্র গ্রহের দ্বাদশে অবস্থান ফল—

লগ্নে শুক্র— লগ্নে শুক্র থাকলে জাতক বা জাতিকা হয় খুব সৌখিন। সবসময় ফিটফাট থাকতে ভালবাসবে। বিপরীত লিঙ্গের কাছে খুব জনপ্রিয় হয়। লগ্নের দ্বিতীয়ে শুক্র— শারীরিক সম্পর্কের জন্য জাতক বা জাতিকা খুব আগ্রহী হয়। অনেক সময় বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে আবদ্ধ হয়। লগ্নের তৃতীয়ে

শুক্র— নারী সবসময় পুরুষ ঘেঁষা হয়, এবং পুরুষ সব সময় নারী ঘেঁষা হয়। এদের বন্ধুত্ব হবে বেশির ভাগ বিপরীত লিঙ্গের সঙ্গে। লগ্নের চতুর্থে শুক্র— লগ্নের চতুর্থে শুক্র থাকলে জাতক বা জাতিকাকে কামপ্রবণ করে তোলে।

 লগ্নের পঞ্চমে শুক্র— অনেক ক্ষেত্রে জাতক বা জাতিকা বাল্য অবস্থায় শারীরিক সম্পর্ক করে ফেলে। চারিত্রিক দোষযুক্ত হয়। লগ্নের ষষ্ঠে শুক্র— বিবাহিত জীবন খুব সুখের হয়, কিন্তু জাতক একাধিক নারীসঙ্গে লিপ্ত থাকে।

লগ্নের সপ্তমে শুক্র— জাতক-জাতিকা গোপন যৌন সম্পর্ক থাকার পাশাপাশি অনেক সময় যৌন রোগে আক্রান্ত হয়। লগ্নের অষ্টমে শুক্র— জাতকের বিবাহের পর ভাগ্যের উন্নতি হয়। জাতিকাও তাঁর বিবাহের পর স্বামীর ভাগ্যের উন্নতি হয়।

লগ্নের নবমে শুক্র— জাতক বা জাতিকার অত্যন্ত যৌন আসক্তি থাকে৷

লগ্নের দশমে শুক্র— হঠাৎ বিপরীত লিঙ্গের প্রতি আসক্ত হয়ে পরে এবং আগে পিছনের কথা ভাবে না। লগ্নের একাদশে শুক্র— হঠাৎ অপ্রত্যাশিত সূত্র থেকে অর্থলাভ হয়। অনেক সময় জাতকের পারিবারিক খরচের ব্যাপারে স্ত্রীর উপর নির্ভরশীল হতে হয়।

লগ্নের দ্বাদশে শুক্র— জাতক বা জাতিকা অত্যধিক কামুক প্রকৃতির হয়। জাতক নারীসঙ্গের জন্য প্রচুর অর্থ নষ্ট করে ত্রবং জাতিকাও পুরুষসঙ্গের জন্য অর্থব্যয় করে থাকে।