এবার কি সব্যসাচী, শৃঙ্খলা ভাঙার অভিযোগ! যা বলেছি ঠিকই বলেছি

এবার কি সব্যসাচী, শৃঙ্খলা ভাঙার অভিযোগ! যা বলেছি ঠিকই বলেছি

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিপক্ষ হিসেবে কোনও বাঙালি মুখ তুলে ধরতে না পারাতেই বিধানসভা নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে বিজেপি-র। প্রকাশ্যে এমনই অভিযোগ তুলেছিলেন সব্যসাচী দত্ত। বিধাননগরের বিজেপি প্রার্থী সব্যসাচী একই সঙ্গে গেরুয়া শিবিরের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নীতি নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন, ''ভিন্ রাজ্যের নেতারা যে ভাষায় কথা বলেছেন তা বাংলার মানুষ বুঝতেই পারেননি।''

সংবাদমাধ্যমকে এই ধরনের মন্তব্য করাটা দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গ বলেই মনে করছে রাজ্য বিজেপি। এ নিয়ে দলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটিতে অভিযোগও জমা পড়েছে। তবে তার পরেও নিজের বক্তব্য অটল সব্যসাচী। তিনি বলেন, ''আমি যা বলেছি ঠিকই বলেছি। এখনও বলছি, গ্রামবাংলার মানুষ ভিন্ রাজ্যের নেতাদের কথা বুঝতে পারেননি।''

গত মঙ্গলবার কলকাতার হেস্টিংসে বিজেপি-র কার্যালয়ে দিলীপ ঘোষের ডাকা বৈঠকে এই সব অভিযোগ জানাতে শুরু করেছিলেন সব্যসাচী। কিন্তু তাঁকে তা বলতে দেওয়া হয়নি। তিনি শুরু করতেই 'সময় কম' জানিয়ে থামিয়ে দেন দিলীপ। এর পরে সব্যসাচী সংবাদমাধ্যমে মুখ খোলেন। যাবতীয় ক্ষোভ জানিয়ে দেন। এটাকেই শৃঙ্খলাভঙ্গ বলে মনে করছে বিজেপি নেতৃত্ব।

মঙ্গলবারের বৈঠকের পরেই দিলীপ জানান, বাঁকুড়ার সাংসদ সুভাষ সরকারের নেতৃত্বে একটি শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি গড়া হয়েছে। ওই কমিটির কাছেই সব্যসাচীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়েছে। তবে বিজেপি এখনও সব্যসাচীর বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করেনি। তবে খুব তাড়াতাড়ি সব্যসাচীকে কারণ দর্শানোর নোটিস দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন রাজ্য বিজেপি-র এক নেতা।