দাম্পত্য জীবনে বিবাহ মাসের কি কোনও গুরুত্ব আছে (শেষ অংশ)

দাম্পত্য জীবনে বিবাহ মাসের কি কোনও গুরুত্ব আছে (শেষ অংশ)

যদি আপনার বিয়ে হয় ২২ নভেম্বর থেকে ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে: দাম্পত্য জীবন বলতে আমরা যা বুঝি, তাঁর বেশির ভাগটাই সম্পন্ন হয় ঘরের চার দেওয়ালের মধ্যে। কিন্তু তাঁদের ভিতরের ভাবটা থাকে বোহেমিয়ানদের মতো। এঁরা চার দেওয়ালের বাইরের জীবনকে বড্ড বেশি প্রশ্রয় দিয়ে থাকেন।

এঁদের সংসার করাটা অনেকটা হোটেলে থাকার মতো। এঁরা ঘন ঘন বেড়াতে যান, অজানা অচেনা জায়গায় যেতে চান। এঁরা দাম্পত্য জীবনে সব সময় নতুন কিছু শিখছেন, নতুন কিছু নিয়ে পরীক্ষা করে চলেছেন। ফলে এঁরা দাম্পত্য জীবনে অনেক ব্যাপারে ঝুঁকি নিয়ে থাকেন। অনেক সময় এই সব ঝুঁকি থেকে আর্থিক ক্ষতি হয়।

এমনকি, দাম্পত্য সম্পর্কেও ধস নেমে আসতে পারে। তাই খুব সাবধান হতে হবে। এঁরা দাম্পত্য জীবনে কোনও ভাবেই একঘেয়েমিকে প্রশ্রয় দিতে চান না। যদি আপনার বিয়ে হয় ২২ ডিসেম্বর থেকে ১৯ জানুয়ারির মধ্যে: এই সময়ের মধ্যে যাঁরা বিয়ে করেন, তাঁরা প্রচণ্ড শীতে বিয়ে করে থাকেন।

দাম্পত্য জীবনে এঁরা রুচির পরিচয় দেন এবং পারিবারিক ঐতিহ্য মেনে চলতে চান। স্বামী ও স্ত্রী সব সময় সেই সব সংস্কৃতি লালন করেন, যা তাঁদের পূর্বপুরুষরা মেনে এসেছেন বা যার মধ্যে ঐতিহ্যের স্বাদ আছে। এঁরা ছুটি কাটানোর সময় ছোটবেলায় সাড়ম্বরে পালন করা উৎসব বা ভ্রমণ, বা কোনও আত্মীয়ের বাড়ি যাওয়াকে অগ্রাধিকার দেন।

এঁরা ছুটি কাটানোর মধ্যে নস্ট্যালজিক হয়ে পড়েন। যাঁরা এই সময়ে বিয়ে করেছেন, তাঁদের উচিত বর্তমানকে উপভোগ করা। ২০ জানুয়ারি থেকে ১৮ ফ্রেব্রুয়ারির মধ্যে আপনার বিয়ে হলে: এই সময়ে যাঁরা বিয়ে করেন, তাঁদের বিয়েতে নানা বিচিত্র ঘটনা ঘটে থাকে। তাঁরা সব সময় আধুনিক নিয়ম মেনে বিয়ে বা দাম্পত্য জীবন পালন করে থাকেন।

সেই অর্থে ২২ ডিসেম্বর থেকে ১৯ জানুয়ারির মধ্যে যাঁরা বিয়ে করেছেন, এঁরা তাঁদের পুরো বিপরীত। এঁদের দাম্পত্য সম্পর্কের মধ্যে জনতা, পাড়ার লোক, সমাজের লোকজন সব নানা ভাবে জড়িয়ে থাকে। ভীষণ সামাজিক হওয়ায় পারিবারিক বা দাম্পত্য সম্পর্কে অনেক সময় ক্ষতি হতে পারে। তাই চেষ্টা করতে হবে নিজেদের মধ্যে বেশি সময় দেওয়ার।

যদি আপনার বিয়ে হয় ১৯ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে ২০ মার্চের মধ্যে: এই সময়ে যাঁরা বিয়ে করেছেন, তাঁরা সব সময় একটু স্বপ্ন, ফ্যান্টাসি, কল্পনা, আবেগ, রোমান্সের মধ্য দিয়ে দাম্পত্য সম্পর্ককে দেখে থাকেন, যেখানে অনেক সময় বাস্তবের উপস্থিতি প্রায় টের পাওয়াই যায় না।

আপনাদের দাম্পত্য সম্পর্ক অবশ্যই স্বপ্নালু, তবে আপনাদের মাটির সঙ্গে দৃঢ় ভাবে যুক্ত থাকতে হবে। মনে রাখতে হবে আমরা সবাই মাটির মানুষ। মাটি থেকে রস পেয়ে তবে গাছ বাঁচে।সম্পর্কের ক্ষেত্রেও এই একই সূত্র কাজ করে। আর মাটি মানেই বাস্তব। বাস্তবের সঙ্গে সম্পর্ককে যুক্ত করে টিকিয়ে রাখতে হবে।