রাশি অনুযায়ী আপনার বাসস্থান কেমন হবে (প্রথম অংশ)

রাশি অনুযায়ী আপনার বাসস্থান কেমন হবে (প্রথম অংশ)

রাশি অনুযায়ী আপনার বাসস্থান কেমন হবে? এখানে রাশি বলতে জন্মকালীন চন্দ্র যে রাশিতে রয়েছে বা রবি যে রাশিতে রয়েছে, বা লগ্ন যে রাশিতে রয়েছে— এই তিনটি জায়গা থেকেই আপনার রাশির বিচার করলে আপনার বাসস্থান কেমন হবে তার উত্তর পেয়ে যাবেন। নীচে রাশি অনুযায়ী আপনার বাসস্থানের পরিবেশ কেমন হবে তার সংক্ষিপ্ত বিবরণ উল্লেখ করা হল:

মেষ: মেষের জাতক/জাতিকারা তাঁদের ভবিষ্যৎ বাসস্থানের স্বরূপ কেমন এই ভেবে যখন স্বপ্ন দেখেন তখন তাঁদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার মধ্যে থেকে যায় সন্তানসন্ততি-সহ ছেলেমেয়ে নিয়ে যে সংসার তার ভাবনা, সেই পরিপ্রেক্ষিতে তাঁরা চান কাছাকাছি কিন্ডারগার্টেন গোছের স্কুল বা মাধ্যমিক স্কুল থাকতে হবে। মেষ অগ্নি রাশি তাই তারা কাছাকাছি গাছগাছালিতে ভরা যদি কোনও ফ্যাক্টরি থাকে, সেখানে যদি ফারনেস, আগুন, আলো বা বয়লার থাকে তা নিয়ে তাঁরা কোনও অসুবিধা অনুভব করবেন না। মেষের জাতক/জাতিকারা খেলাধূলা, শরীরচর্চায় আগ্রহী তাই তাঁরা চান কাছাকাছি যেন খেলার মাঠ বা জিম থাকে।

বৃষ:  বৃষরাশির জাতক/জাতিকা আবার বিভিন্ন রেস্তরাঁয় ভাল খাবার ও পানভোজনে কমবেশি আসক্ত হওয়াটাকে একটা স্ট্যাটাস সিম্বল হিসেবেই দেখে থাকেন, দামী জামাকাপড় পড়তে ও কিনতে ভালবাসেন, তাঁরা চান ঘরে দামী ও অত্যাধুনিক ইলেক্ট্রনিক গ্যাজেট যেন গৃহে শোভা পায়। এঁরা একা খান না, সবাইকে ডেকে নিয়ে খাওয়ান, তাই তাঁরা চান তাঁদের বাসস্থানের কাছাকাছি ভাল মল, হোটেল ও কাফে যেন থাকে। তাঁরা চান তাঁদের বাসস্থানের কাছেই যেন থাকে গ্রিন পার্ক, গার্ডেন, লেক, ফুলে ভরা পার্ক। বৃষ আবার পশুপ্রেমী, তাই তাঁরা চান বাড়ির কাছে ফাঁকা মাঠ যেন থাকে যাতে তাঁদের প্রিয় পোষ্যকে নিয়ে বেড়াতে পারবেন।

আরও পড়ুন   রাশি অনুযায়ী আপনার বাসস্থান কেমন হবে (শেষ অংশ)

মিথুন:   মিথুন প্রথমেই দেখে নিতে চায় তার বাসস্থানের কাছে রেলস্টেশন, বাসস্ট্যান্ড, অটোস্ট্যান্ড আছে কি না। সে ভাবে, তার বাসস্থানের কাছাকাছি মার্কেট আছে কি না যেখান থেকে দৈনন্দিন প্রয়োজনগুলি সে মেটাতে পারবে কি না। মিথুন মানেই যোগাযোগের রাশি। মিথুনের জাতক/জাতিকারা বেশির ভাগ এমন কর্মের সঙ্গে জড়িয়ে থাকে তার জন্য তাদের অনেককে কমবেশি ডেলি প্যাসেঞ্জারি করতে হয়। মিথুন হচ্ছে জন্ম পর্যটক, তাই তারা চায় কাছাকাছি রেস্তরাঁ বা হোটেল থাকতেই হবে।

কর্কট: বাসস্থানের দিক থেকে কর্কটের কিছু বিশেষ বৈশিষ্ট রয়েছে। তারা চায় তাদের বাসস্থানের কাছেই যেন ভাল পুকুর, দিঘি, কোনও ছোট বা বড় নদী থাকে। কারণ কর্কট হচ্ছে জলরাশি। এরা কিন্তু হুল্লোড়ের মধ্যে বাস করতে চায় না, একাকী থাকতে ভালবাসে।

সিংহ: এরা বাসস্থান বানাতে চায় এমন একটি স্থানে যেখান তারা সব ধরনের নাগরিক সুবিধা পাবে। এরা এমন জায়গায় থাকতে চায় যেখানে মোটামুটি সব ধরনের বিনোদন পাওয়া যাবে। এরা নিরালা জায়গায় থাকতে চায় না। এরা মনের দিক থেকে কসমোপলিটন, তাই বিভিন্ন সংস্কৃতির লোকেদের সঙ্গে মিশতে ভালবাসে।

কন্যা: ব্যয়বহুল, জনবহুল ও বিলাসবহুল স্থানে বাসস্থান তৈরিতে একদম আগ্রহ নেই এদের। এরা কিছুটা আড়ালে থাকতে আগ্রহী। বাসস্থান তৈরির সময়  এদের লক্ষ্য থাকে যাতে তাড়াতাড়ি অল্প দূরত্ব এবং অল্প খরচে বাড়ি থেকে কর্মস্থানে যাওয়া যায়। এরা বাড়ি করার সময় লক্ষ্য রাখে হাইওয়ে বা বাস টার্মিনাস বা বাসস্টপ বা স্টেশন যেন কাছাকাছি থাকে। কন্যারাশির মানুষজন খুব পরিপাটি করে বাস করতে ভালবাসে, তাই অপরিষ্কার পাড়া বা বস্তিতে বাসস্থান তৈরির ঘোর বিরোধী এরা।