শরীরচর্চার জন্য কখন ভাল সময় সকাল নাকি সন্ধ্যায় ?

শরীরচর্চার জন্য কখন ভাল সময়  সকাল নাকি সন্ধ্যায় ?

ছকে বাধা জীবন নিজের দিকে আলাদা ভাবে মন দেওয়ার সুযোগ দেয় না। শরীরচর্চা সাহায্য করতে পারলে নিয়মের একঘেয়েমি অনেকটাই কাটে। কিন্তু সময় কোথায়? ব্যায়াম বা শরীরচর্চা সুস্থ থাকার পথ দেখায়। ফলে সময় বার করতেই হবে। সকালে না হোক, অন্তত সন্ধ্যার পরে। নিয়মিত ব্যায়াম অভ্যাস শুধু শরীর সুস্থ রাখে না, মনেরও যত্ন নেয়। খেয়াল রাখা জরুরি যে, শরীরচর্চার জন্য ঠিক সময় বলে কিছু হয় না।

সপ্তাহে দিন ছয়েক ৯টা থেকে ৬টা পর্যন্ত যাঁরা কাজ করেন, সকালে উঠেই ব্যায়াম বা যোগ অভ্যাস করার সুযোগ তাঁদের না-ই হতে পারে। সে ক্ষেত্রে সন্ধ্যা-রাতে একটু দৌড়নো কিংবা জিমে যাওয়ার চেষ্টা থাকুক। যাঁরা ভোরে ওঠেন, তাঁদের জন্য অবশ্যই সেটা শরীরচর্চার সবচেয়ে ভাল সময়। তবে সন্ধ্যার পরে কিছু ক্ষণ ঘাম ঝরানো হলেও কোনও ক্ষতি নেই। বরং উপকার হবে। দেখে নেওয়া যাক কোন সময়টা ভাল ভাবে ব্যবহার করা যায় শরীরের যত্ন নেওয়ার জন্য। 

 সকাল   ব্যায়াম করার জন্য এই সময়টা খুব কার্যকর। সকালে আধ ঘণ্টা বা ৪০ মিনিট শরীরচর্চা করতে পারলে গোটা দিনটা ঝরঝরে লাগে। নিয়মিত শরীরচর্চা এন্ডরফিরন নামক একটি হর্মোনের নিঃসরণ বাড়িয়ে দেয়। তাতে মন ভাল থাকে। ফলে ব্যায়ামের পরে ক্লান্ত লাগে না, বরং আনন্দ হয়। কাজ করার ইচ্ছা বাড়ে। সে রান্নাবান্না হোক বা রোজের অফিসের দায়িত্ব,

সবটাই অনেক ভাল ভাবে করা যায়। রোজের কাজের শেষে সামাজিক মেলামেশাতেও বিরক্তি আসে না। সকালের দিকে ব্যায়াম করার আরও একটি সুফল আছে। এতে খিদে বাড়ে। হজম ভাল হয়। খাওয়ার ইচ্ছে যত তৈরি হবে, শরীরে ততই প্রয়োজনীয় সব জিনিসপত্র যাবে। অর্থাৎ, স্বাস্থ্য ভাল রাখতেও সাহায্য মিলবে। 

 সন্ধ্যা সকালের শরীরচর্চা যেমন বেশি কাজের, তেমনই কর্মব্যস্ত মানুষের জন্য সান্ধ্য ব্যায়াম অভ্যাসই ভাল। তাতে সকালে সামান্য হলেও বেশি ঘুম হয়। যা অত্যন্ত জরুরি। সন্ধ্যায় ব্যায়াম করার একটা ভাল দিক হল, তত ক্ষণে দিনের অনেকটা কাজ করে ফেলেছে শরীর। ভারী ব্যায়ামের জন্য তৈরি হয়ে গিয়েছে। ফলে যাঁরা ওজন তোলা বা অনেক ক্ষণ দৌড়নোর মতো কিছু করতে চান, তাঁদের জন্য এই সময়টা সুবিধের।

সন্ধ্যায় ব্যায়াম করলে শরীরের খানিকটা আরাম হয়। সারা দিনের কাজের ধকল শরীর থেকে ঝেড়ে ফেলা যায় এর মাধ্যমে। ফলে রাতের ঘুমটা ভাল হয়। অর্থাৎ, সকালে ব্যায়াম করার সময় হয় না বলে এড়িয়ে যাওয়ার মানে হয় না। কাজের পরে যদি কিছুটা সময় থাকে, তখনই কিছুটা ব্যায়াম করা যাক না। নিয়মিত শরীরচর্চা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তা দিনে হোক বা রাতে।

[ আরও পড়ুন জানুশিরাসন ]