পুরভোট কবে? রাজ্য সরকারের কাছে জবাব চাইল সুপ্রিম কোর্ট

পুরভোট কবে?  রাজ্য সরকারের কাছে জবাব চাইল সুপ্রিম কোর্ট

পশ্চিমবঙ্গে  পুরভোট কবে? এবার সরাসরি রাজ্য সরকারের কাছে স্পষ্ট জবাব চাইল সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)। সোমবার রাজ্য সরকারের কাছে শীর্ষ আদালত জানতে চায়, পশ্চিমবঙ্গে পুরভোট (Civic Polls) কবে হচ্ছে? আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে রাজ্যকে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

এদিন আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়, কোভিড পরিস্থিতির কারণে যদি পুরভোট না করা হয়ে থাকে সেটা কবে হবে তা যেন রাজ্য জানায়। পুরোভোট সংক্রান্ত মামলা এর আগেই কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের হয়েছিল। সেই সময় সিঙ্গল ও ডিভিশন বেঞ্চ উভয়ই পর্যবেক্ষণে জানায়, অতিমারি পরিস্থিতিতে আপাতত ভোটের প্রয়োজনীয়তা নেই।

ফলে প্রশাসক জারি থাকবে পুরসভায়। এরপর সেই মামলাকারী সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন। সেখানে রাজ্যের পক্ষে সওয়াল করেন অভিষেক মনু সিংভি ও কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। পুরভোটে কেন হয়নি জানতে চায় শীর্ষ আদালত। সেই প্রশ্নের জবাব আগামী ১০ দিনের মধ্যে দিতে হবে রাজ্য সরকারকে।

কলকাতা হাইকোর্টের পুরভোট স্থগিত রাখার নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে গত ২৫ অগস্ট সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেন প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সময়ও রাজ্যের কাছে জবাব চেয়েছিল বিচারপতি সঞ্জয় কিষাণ কৌলের বেঞ্চ। তবে তখন কোভিড পরিস্থিতি অন্যরকম থাকায় তা নিয়ে বেশি জলঘোলা হয়নি।

ফলে চলতি বছরের মাঝামাঝি যে ভোটপর্ব মিটে যাওয়ার কথা ছিল, তা এখনও ঝুলে। অন্যদিকে কলকাতা-সহ রাজ্যের বেশির ভাগ পুরসভাতেই প্রশাসক নিয়োগ করে রেখেছে সরকার। দীর্ঘদিন ধরে এভাবে প্রশাসক নিয়োগ করে রাখা অনৈতিক বলেও দাবি করছেন বিরোধীরা।

এমন একটা সময় যখন বিধানসভা নির্বাচনের আর টেনেটুনে মাসছয়েক বাকি। তখন পুরভোট আদৌ হবে কিনা, হলেও কবে হবে, তা নিয়েই ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে রাজ্যবাসীর মনে। বিশেষ করে কোভিডের অজুহাতও এখন ধোপে টেকার নয়। কেননা এই পরিস্থিতির মধ্যেই বিহারে বিধানসভা নির্বাচন সাঙ্গ হয়েছে বড় কোনও বিপত্তি ছাড়াই।

সম্পন্ন হয়েছে গ্রেটার হায়দরাবাদ পুরভোটও সঙ্গে একাধিক রাজ্যের উপনির্বাচন। ফলে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, এ রাজ্যেও পুরভোট হতে সমস্যা কোথায়? শেষমেশ তা হয় কিনা সেই জবাব অবশ্য আগামী ১০ দিনের মধ্যেই পাওয়া যেতে পারে। এমন সম্ভাবনা তীব্রতর হয়েছে আদালতের আজকের নির্দেশের পর।