এলাচের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানলে আপনিও অবাক হবেন

এলাচের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানলে আপনিও অবাক হবেন

সুগন্ধি মশলা হিসেবে এলাচ খুবই পরিচিত। মশলার রানিও বলা হয়ে থাকে এলাচকে। সুগন্ধের সাথে সাথে এলাচের স্বাস্থ্য  উপকারিতাও রয়েছে প্রচুর পরিমাণে। জেনে নিন এলাচের উপকারী গুণ সম্পর্কে —

শ্বাসকষ্ট কমাতে : হাঁপানির সমস্যায় যাঁরা ভুগে থাকেন, তাঁদের জন্য এলাচি খুবই উপকারী। এলাচ বিভিন্ন রকমের সমস্যা যেমন সর্দি, কাশি, ফুসফুসের সমস্যা ইত্যাদি থেকে মুক্তি দেয়। ব্রঙ্কাইটিস বা শ্বাসপ্রশ্বাসের কোনো রকম সমস্যা থাকলে এলাচ খাওয়া ভালো। 

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে :  গবেষণায় দেখা গেছে এলাচ ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। এলাচ দেহে ক্যান্সারের কোষ গঠনেও বাঁধা প্রদান করে থাকে।

ত্বকের সমস্যায় : ত্বকের ফর্সাভাব ও ঔজ্জ্বল্যের জন্যে এলাচ দারুণ কাজ করে। ত্বকে ব্রণ ও কালচে ভাব দূর করে। মধু ও এলাচের প্যাক বানিয়ে মুখে লাগিয়ে ফল পেতে পারেন। ত্বকের অ্যালার্জি দূর করতেও এলাচ খুবই উপকারী। 

হার্টের জন্য ভালো : এলাচের মধ্যে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদানগুলি হার্টের জন্যে বেশ স্বাস্থ্যকর। এতে রয়েছে ফাইবার যা কোলেস্টরল কম করতে সাহায্য করে। যার ফলে এলাচ খুবই উপকারী। 

হজমের সমস্যা দূর করে :  বমি ভাব, পেট ফাঁপা, অ্যাসিডিটির হাত থেকে মুক্তি পেতে এলাচ খুবই উপকারী । হজমের সমস্যা দূর করতে এলাচ ভীষণ উপকারি।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে :  উচ্চ রক্তচাপের রোগ থাকলে এলাচ খুবই উপকারী। রোজ একটা করে এলাচ খাওয়ার ফলে রক্ত চাপ নিয়ন্ত্রিত হয়। 

মুখের গন্ধ দূর করতে : যাঁদের মুখে গন্ধের সমস্যা আছে তারা এলাচ ব্যবহার করতে পারেন। এলাচের ব্যবহারে সহজে মুখের গন্ধ দূর করা যায়।

প্রতি ১০০ গ্রাম এলাচের পুষ্টিগুণ হল ৩০০ কিলো ক্যালরি, কার্বোহাইড্রেট- ৬৮ গ্রাম, প্রোটিন- ১১ গ্রাম, ফাইবার- ২৮ গ্রাম।