শান্তিনিকেতনে পিটিয়ে খুন যুবককে, গ্রেফতার অভিযুক্ত

শান্তিনিকেতনে পিটিয়ে খুন যুবককে, গ্রেফতার অভিযুক্ত

মদের আসর থেকে সামান্য বচসা। তার জেরে পিটিয়ে খুন প্রতিবেশীকে। মৃতের নাম পশুরাম লোহার। ঘটনা ঘিরে অশান্তির ছায়া শান্তিনিকেতনে (Santiniketan)। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ। আতঙ্কে মৃতের পরিবারের লোকজন। ছেলের খুনির কঠোরতম শাস্তি দাবি করছেন তাঁরা।  

স্থানীয় সূত্রে খবর, দিন পনেরো আগে শান্তিনিকেতন থানা এলাকার বাগানপাড়া গ্রামে মদের আসরে ছোটখাটো ঝামেলা হয়। সেখান থেকে বচসা, হাতাহাতি। অভিযোগ, ঝগড়ার সময়ে পশুরাম লোহারকে লাঠি দিয়ে পেটানো (Lynching) হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় পশুরামকে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে ভরতি করা হয়।

তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হল বোলপুর থেকে বর্ধমান (Burdwan) মেডিক্যাল কলেজে ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু সেখানেও তাঁর অবস্থার কোনও উন্নতি হচ্ছিল না। চিকিৎসকরা কিছু শারীরিক পরীক্ষা করে কলকাতায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন।

 জানা গিয়েছে, পশুরামের বাড়ির সদস্যরা তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছাড়িয়ে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যান। বৃহস্পতিবার সকালে পশুরামের মৃত্যু হয়। পরিবারের অভিযোগ, সেদিন বেদম মারের জেরেই প্রাণ হারাতে হল পশুরামকে। শান্তিনিকেতনে থানায় অভিযোগ দায়ের করে তাঁর পরিবার। বৃহস্পতিবার রাতে বাগানপাড়া গ্রামের অভিযুক্ত সন্দেহে সম্রাট হাঁসদাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ৩০৭ ধারা অর্থাৎ খুনের চেষ্টার মামলা রুজু করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।