অবৈধ ভাবে নদী সাঁতরে ভারতীয় ভুখণ্ডে প্রবেশের চেষ্টা বাংলাদেশি যুবকের

আজবাংলা     করিমগঞ্জ    সাঁতরে কুশিয়ারা নদী অতিক্রম করে করিমগঞ্জে প্রবেশের চেষ্টা এক বাংলাদেশি আটক হয়েছে বিএসএফের হাতে। করিমগঞ্জ জেলার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে রবিবার সকালে। করোনা আতঙ্কের মধ্যে বিদেশি কেউ ভারতে প্রবেশ করছে, এই খবরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে গোটা শহরে। রবিবার সকালে করিমগঞ্জের কুশিয়ারা নদী সাঁতার দিয়ে পেরিয়ে ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করে এক বাংলাদেশি যুবক। এদিন সকালে বাংলাদেশ ও ভারত ভূখণ্ড বিভাজনকারী কুশিয়ারা নদী তীরে অবস্থিত দাসপট্টি এলাকায় নদীতে মাছ ধরছিলেন জনৈক ব্যক্তি। সেই সময় তার চোখে পড়ে কেউ একজন নদীর ওপার থেকে সাঁতরে এপারে আসছে। বাংলাদেশি যুবকটি এপারে আসার সঙ্গে সঙ্গে ব্যক্তিটি তাকে পাকড়াও করেন। পর মূহূর্তেই করোনা ভাইরাসের ভয়ে এই বাংলাদেশি নাগরিককে যথাস্থানে দাঁড়িয়ে থাকতে বলে আশপাশের লোকজনকে ডাকের মাছ শিকারি ব্যক্তিটি। ঘটনার খবর দাবানলের মতো চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে।কিছুক্ষণ পর‌ খবর পেয়ে উপস্থিত হয় বিএসএফ বাহিনী।বিএসএফ বাহিনী যুবকটিকে আটক করে সীমান্তের ওপারে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডসের হাতে সমঝে দিয়েছে।বিএসএফ-এর ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল জে সি নায়েক জানিয়েছেন, রবিবার সকাল ৭.৩০ নাগাদ সীমান্ত অতিক্রম করতে কুশিয়ারা নদী সাঁতরে পেরোন মধ্য তিরিশের যুবক আবদুল হক। তিনি বাংলাদেশের সুনামগঞ্জের বাসিন্দা বলে জানান। কিন্তু ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে করিমগঞ্জ জেলায় বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। বিশেষ করে করোনা ভাইরাসজনিত আতঙ্কের সময় এভাবে এক বিদেশির অনুপ্রবেশকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে করিমগঞ্জে। করোনা আতঙ্কের সময় অবৈধ উপায়ে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতীয় ভুখণ্ডে প্রবেশকারী বিদেশি নাগরিকের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কেন হয়নি, ইত্যাদি নানা প্রশ্ন জেলা সদর শহরের সচেতন মহলে উঠেছে।