মালদায় প্রকাশ্য রাস্তায় মাংস ব্যবসায়ী ও তার মাকে বেধরক মারধরের অভিযোগ

দেবু সিংহ  আজবাংলা  মালদা ঃ মালদায় প্রকাশ্য রাস্তায় বেধরক মারধর মাংস ব্যবসায়ী ও তার মাকে। অভিযোগ স্থানীয় এক ব্যাক্তি স্বপন সিংহ ও তার ছেলে মানস সিংহের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার ইংরেজ বাজার থানার বিদ্যাসাগরপল্লীতে(২০নং ওয়ার্ড)। জানা গিয়েছে, আহত মাংস ব্যবসায়ীর নাম জীবন কুমার দাস(৪০)। মালদা শহরে ৩২০ মোড় এলাকায় তার একটি মাংসের দোকান রয়েছে।

অভিযোগ গত ৭ই জুলাই স্থানীয় এক ব্যাক্তি নাম স্বপন সিংহ ও তার ছেলে মানস সিংহ দোকানে এসে মাংস ব্যবসায়ী, তার স্ত্রীর ও তার মায়ের উপর চড়াও হয়ে প্রকাশ্য রাস্তায় বেধরক মারধর করে ও ভেঙে দেয় তার দোকান। এরপর গত কিছুদিন আগে মাংস ব্যবসায়ীর বাড়ি গিয়ে আবার তার স্ত্রী ও মাকে মারধর করে বলে অভিযোগ। আহত স্ত্রী ও মাকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করেন জীবন দাস। তারপর ইংরেজ বাজার থানার অভিযোগ জানাতে গেলে প্রথমে তার অভিযোগ নেওয়া হয়নি। এরপর পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হন তিনি। তাতেও কোনো ফল পায়নি বলে জানান জীবন দাস।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ছোটবেলা থেকে স্বপন সিংহের বাড়িতে যাতায়ত ছিল জীবন দাস(পবন)এর। অভিযুক্ত স্বপন সিংহের উত্তর ২৪ পরগনায় থাকা জায়গা জমির দেখাশুনা করত জীবন দাস। ২০০৬ সালে সেখান থেকে ফিরে এসে নিজের ব্যবসা শুরু করে জীবন। ১৪ বছর পর গত ৭ই জুলাই স্বপন সিংহ তার দোকানে এসে অভিযোগ করে জীবন দাস নাকি তার অজান্তে কিছু জাইগা জমি অন্যত্র বেঁচে দিয়েছে এবং প্রকাশ্য রাস্তায় বেধরক মারধর করে জীবন দাস, তার স্ত্রীকে ও মাকে। ভেঙে দেওয়া হয় তার দোকান। জীবন দাসের বক্তব্য পুলিশকে জানালেও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। অবশেষে আদালতের দারস্ত হন তিনি। তারপরেও কিছুদিন আগে আইনি মামলা চলাকালীন তার বাড়ি গিয়ে অত্যাচার করেছে স্বপন সিংহ ও তার ছেলে মানস সিংহ। এখন ব্যবসা বন্ধ রয়েছে তার।এই ঘটনার পর আতঙ্কে রয়েছে জীবন দাসের গোটা পরিবার। ন্যায় বিচার পাওয়া অবধি শান্তিতে থাকতে চাই জীবন দাস।আপাতত স্ব-পরিবার নিয়ে ঘর ছাড়া রয়েছে জীবন দাস। এ বিষয় নিয়ে স্বপন সিংহের প্রতিক্রিয়া জানতে গেলে সংবাদ মাধ্যমের সামনে মুখ খুলতে নারাজ তিনি।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!