হাসপাতালে পৌঁছনোর জন্য গর্ভবতী মহিলাকে রান্নার বাসনে বসিয়ে ভাসানো হল নদীতে

হাসপাতালে পৌঁছনোর জন্য গর্ভবতী মহিলাকে রান্নার বাসনে বসিয়ে ভাসানো হল নদীতে
আজবাংলা     আজ মানুষ কতটা অসহায় | দেশের এই পরিস্থিতির মধ্যেই আরও এক ঘটনা উঠে এল সকলের সামনে | হাসপাতালে পৌঁছনোর জন্য ঝুঁকি নিয়েই এক গর্ভবতী মহিলাকে রান্নার বাসনে বসিয়ে ভাসানো হল নদীতে | রীতিমতো যুদ্ধ করতে হল হাসপালে পৌঁছনোর জন্য | ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগড়ের বিজাপুরের গোরলায় | একজন গর্ভবতী মহিলাকে রান্নার বাসনে বসিয়ে তাকে পার করা হল নদী দিয়ে | এখানেই শেষ নয় এরপর ১৫ কিলোমিটার রাস্তা অনেক কষ্টে পার করে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে | হাসপাতালে পৌঁছনোর পরেও ঠিক মতো চিকিৎসা পেলেন না এই অসহায় গর্ভবতী মহিলাটি | মহিলাটির পরিবারের লোকজন অভিযোগ করেছেন তাকে ভাল ভাবে চিকিৎসা করা হয়নি | হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চিকিৎসায় গাফিলতি করেছেন | কেন এই গর্ভবতী মহিলাকে এই ভাবে পৌঁছতে হল হাসপাতালে? জানা গিয়েছে ওই নদীর উপর কোনও ব্রিজ নেই বহুদিন ধরে | অন্য সময় ওখানকার মানুষেরা নৌকো করে এপার ওপর হন | কিন্তু বর্ষায় নদী ফুলে-ফেপে উঠেছে তাই নৌকো চলাচল বন্ধ | অগত্যা কোন উপায় না পেয়ে তাকে রান্নার বাসনে করেই পার করতে হল নদী | ঝুঁকি নিয়ে এই বর্ষার মধ্যে নদী হেঁটে নদী পেরোনো সহজ নয় | কিন্তু অন্য কোনোদিক উপায় না পেয়ে এই অবস্থাতেই তাকে পার করা হল নদী দিয়ে | নদী পেরিয়ে লক্ষ্মী ইয়ালাম নামের ওই মহিলাকে ভোপালপট্টনম কমিউনিটি হেলথ সেন্টারে ভর্তি করানো হয় | হাপাতালে ভর্তি করানোর পরের দিনেই সে প্রসব বেদনা অনুভব করেন | কিন্তু চিকিৎসকেরা জানান, এখনও সময় হয়নি ডেলিভারির জন্য | কিন্তু এর পর দিনই ওই মহিলা সন্তান প্রসব করেন | এরপরেই ওই হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন মহিলাটির পরিবার | অন্যদিকে চিকিৎসক ও নার্সের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন ভোপালপট্টনমের ব্লক মেডিকেল অফিসার (বিএমও) | আজ কত অসুবিধার মধ্যে পড়ছেন সাধারণ মানুষ | দিনের পর দিন কর দেওয়া সত্ত্বেও মানুষকে ভুগতে হচ্ছে | প্রশাসন একবার ফিরে তাকাচ্ছে না এই মানুষগুলির দিকে | সেই জন্যই আজ এক গর্ভবতী মহিলাকে কাঠ-খড় পুড়িয়ে ঝুঁকি নিয়ে এই ভাবে পৌঁছতে হল হাসপাতালে |