কাপড়ের দোলনায় খেলতে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে মৃত্যু হল তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রের।

রায়গঞ্জ সরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল
রায়গঞ্জ সরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

আজবাংলা ইটাহার উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারে তালবাড়ি এলাকার খেলতে খেলতে গলায় ফাঁস লেগে মৃত্যু হল তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রের। মৃতের নাম রজনী হালদার।বাবা মন্টু হালদার পেশায় ভ্যানচালক। শনিবার বছর নয়েকের রজনীকে মা ঘরের পুজো দিতে বলেন। কিন্তু মায়ের কথায় পুজো দিতে রাজি হয়নি রজনী। এরজন্য ছোট্ট রজনীকে একটু বকাবকিও করেন মা। এরপরই বাড়ি থেকে বেরিয়ে খেলতে চলে যায় রজনী। বাড়ির পাশেই ছিল একটা কদম গাছ। সেখানেই কাপড় দিয়ে দোলনা বানিয়ে দুলছিল রজনী। আচমকা সেই দোলনার কাপড়েই রজনীর গলায় ফাঁস আটকে যায়। ধীরে ধীরে নিস্তেজ হয়ে ঝুলে পড়ে সে। দেখতে পেয়ে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে ইটাহার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে শিশুটিকে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিক্যাল কলেজে রেফার করা হয়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। শনিবার রাতে চিকিৎসারত অবস্থাতেই মৃত্যু হয় শিশুটির। এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে ইটাহারের তালবাড়ি এলাকায়৷

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!