বাংলাদেশের ময়মনসিংহে সপ্তম শ্রেণীর হিন্দু ছাত্রীকে মুখ বেঁধে ধর্ষণ করল আব্দুস সাত্তার

ধর্ষণ
ধর্ষণ

আজবাংলা ময়মনসিংহ বাংলাদেশে কেন এত হিন্দু মেয়েদের প্রতি অসহনীয় অত্যাচার? তার আরেকটা প্রমান পেলাম ময়মনসিংহের ধোবাউড়ার কলসিন্দুর গ্রামে ধোবাউড়ায় স্কুল এন্ড কলেজের স্কুল শাখার সনাতন ধর্মের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে মুখ বেঁধে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে আব্দুস সাত্তার (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। জানা যায়, মেয়েটির বাড়ি সাত্তারের বাসার পাশাপাশি হওয়ার সুবাধে প্রত্যেকদিন মেয়ে তার বাড়ির সামনে দিয়ে স্কুলে যেত। সোমবার সকালে মেয়েটি বাড়ি থেকে স্কুলে যাওয়ার পথে সাত্তার তার পথরোধ করে তার বাড়িতে যেতে বলে। সে যেতে না চাওয়ায় তাকে জোরপূর্বক তার বাড়িতে নিয়ে যায়। এ সময় সাত্তারের বাড়িতে কেউ না থাকার সুবাধে মেয়েটির মুখ বেধে জো্রপুর্বক তাকে ধর্ষণ করে ।সেই সাথে হুমকি দেয় কাউকে জানালে হত্যা করে ফেলবে। পরে মেয়েটি বাড়িতে গিয়ে মা-বাবার কাছে সব কিছু খুলে বলে। কিন্তু, সাত্তার হত্যার হুমকি দেয়া ও সনাতন ধর্মালম্ভী হওয়ার কারনে ভয়ে মামলা করতে পারেনি তারা।ধোবাঊড়া বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টম্বর) রাতে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে আব্দুস সাত্তারকে আসামি করে ধোবাউড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। এর আগে সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে কলসিন্দুর উত্তর বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। থানার ওসি আবদুল খালেক জানান, ঘটনাটির দুদিন পর মেয়েটির পরিবার থানায় এসে ধর্ষক আব্দুস সাত্তারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।আব্দুস সাত্তা্রের ভয়ে তারা থানায় আসতে সাহস পায়নি। তবে আমরা অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা করছি। স্থানীয় একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সাত্তার একজন মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মাদক মামলা আছে। তার বিরুদ্ধে ভয়ে কেউ কথা বলে না।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!