এনআরসি আতঙ্কে মৃত কালাচাঁদ মিদ্দে পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন সাংসদ অভিষেক ব্যার্নার্জি।

শান্তনু পুরকাইত, আজবাংলা দক্ষিন ২৪ পরগনা, এনআরসি আতঙ্কে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন বছর চল্লিশের কালাচাঁদ মিদ্দে। মৃতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন ডায়মন্ড হারবার সাংসদ অভিষেক ব্যার্নার্জি। দক্ষিণ ২৪ পরগনার ফলতা থানার মামুদপুরে মৃতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে সাংসদ তহবিল থেকে দুলক্ষ টাকা পঞ্চায়েত সমিতি থেকে একটি বাড়ি এবং জেলা যুব তৃনমূল কংগ্রেসের পাটি ফান্ড থেকে আরো তিন লক্ষ টাকা ক্ষতিপুরনের আশ্বাস দেন সাসংহদ । এদিন মল্লিক পুরে প্রকাশ্য জনসভা করেন । তিনি প্রকাশ্য জনসভা বলেন এন আর সি বাংলায় হবেন । তার জন্য যা করনিয় তা করবে। বাংলায় মোট সাতজন মারা গিয়েছে আজও একজন বসিহাটে মারা িয়েছে। যদি এন আর সি যদি হয় তাহলে প্রথম বিজেপি নেতা ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিতারিত হবে। আর ডায় মন্ড হারবারে কাউকে মরতে দেবেনা বলে জানান সাংসদ। এনআর সি ঘিরে সিপিএম বিজেপিকে তালা
মেরে ঘরে রাখবে বলে প্রকাশ্য জনসভায় বলেন। পরিবারের অভিযোগ রেশন কার্ড ও আধর কার্ড সংশোধন নিয়ে বেশ চিন্তিত ছিল কালাচাঁদ। আশেপাশের মানুষজনকে এ বিষয়ে তিনি জিজ্ঞাসা ও করেন। পরে এনআরসি আতঙ্কে ভুগতে থাকে কালাচাঁদ মিদ্দে। আসামের এনআরসি ফলেই বহু মানুষ তাদের নাগরিকত্ব হারিয়েছে হয়তো কালাচাঁদ কেউ তার নাগরিকত্ব হারাতে হতে পারে এই ভয়ে গতকাল বাড়ির কাছেই এক বাঁশ বাগানে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন ওই ব্যক্তি। পরে ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।