রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃণমূল কর্তৃক জীবনহানির আশঙ্কা প্রকাশ এবিভিপি নেতা শুভব্রতর,

আজবাংলা রায়গঞ্জ টিএমসিপি কর্তৃক মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো ও জীবনহানির অভিযোগে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে চিঠি দিলেন এবিভিপির জেলা যুগ্ম সম্পাদক তথা এবিভিপির রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিটের সম্পাদক শুভব্রত অধিকারী।এদিন তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের সাথে দেখা করে স্মারকলিপি দেন।তার দাবি,গত ২০ শে বিকেলে টিএমসিপির জেলা সভাপতি অনুপ করের নেতৃত্বে সশস্ত্র অবস্থায় ৬০-৬৫ জন এবিভিপির তিন সদস্যকে ব্যাপক মারধর করে।তাদের মাধ্যমে এবিভিপি নেতা শুভব্রত ও অনন্তকে প্রাণনাশ ও ধর্ষণের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দেওয়া হয়।তাই,জীবনহানির আশঙ্কায় আজ রেজিস্টারকে সমস্ত বিষয় জানানো হয়েছে।এছাড়াও এই স্মারকলিপির প্রতিলিপি রাজ্যপাল,কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী, ইউজিসির চেয়ারম্যানকেও পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি এদিন বেলা ৩ টায় এবিভিপি জেলা কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন ডাকেন শুভব্রত ও জেলা সহ সভাপতি রথীন রায়।শুভব্রত বলেন "ব্রিটিশ কায়দায় এবিভিপি সহ গেরুয়া শক্তির কন্ঠরোধ করার চেষ্টা চালাচ্ছে টিএমসিপি।অধ্যাপক থেকে ছাত্র,কেউ বাদ যাচ্ছেনা।কলেজের মধু হারানোর ভয়ে তারা এতটা বেপরোয়া হয়ে উঠতে চাইছে।"সম্প্রতি, এবিভিপির অনেকটাই শক্তিবৃদ্ধি হয়েছে।সাথে,শক্তি বেড়েছে সঙ্ঘের অধ্যাপক সংগঠনেরও।এবিভিপির নেতৃত্ব দিচ্ছেন সংগঠনের লড়াকু মুখ বলে পরিচিত শুভব্রত অধিকারী এবং টিএমসিপির নেতৃত্ব দিচ্ছেন জেলা সভাপতি অনুপ কর।দুই হেভিওয়েট মুখের লড়াইতে আগামীদিনে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর আরও উত্তপ্ত হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে রাজনৈতিক মহল।