১০০ জন যাত্রী নিয়ে ভেঙে পড়ল বিমান

আজবাংলা : করাচিতে ভেঙ্গে পরলো ১০০ জন যাত্রীসহ একটি বিমান। বিমানটি পাকিস্তানি বিমান সংস্থার একটি বিমান। বিমানটিতে ৯১ জন যাত্রী এবং ৮জন বিমানকর্মী ছিলেন। সব যাত্রী নিয়ে বিমানটি একটি লোকালয়ের মধ্যে পড়েছে বলে জানা গিয়েছে।

তবে এখনো হতাহতের নির্দিষ্ট সংখ্যা জানা যায়নি। ল্যান্ড করার কিছুক্ষণ আগে জিন্নাহ গার্ডেন এলাকায় ভেঙে পড়ে বিমানটি। সে অঞ্চলটি মালির কলোনি নামে বিখ্যাত।
ল্যান্ড করার কিছুক্ষণ আগে এটিসির সাথে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয় বিমানের।

সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে ভিডিওটি আমাদের সামনে এসেছে সেখানে দেখা যাচ্ছে বিমানটি পড়ার সঙ্গে সঙ্গে একাংশে দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। সারা অঞ্চলে কালো ধোঁয়ায় গ্রাস করেছে। অসংখ্য বাড়ি ভেঙে গেছে। প্রাণ আশঙ্কায় ঘর থেকে বেরিয়ে এসেছে বহু মানুষ। খবর পাওয়ার সাথে সাথে উদ্ধারকারী দল সেখানে পৌঁছে গিয়েছে।

বিমানটি লাহোর থেকে করাচি যাচ্ছিল। দেশের সবথেকে ব্যস্ততম বিমানবন্দরের কাছে বিমানটি ভেঙে পড়ে। এখনো পর্যন্ত এই টুকুই খবর পাওয়া গেছে ।এ দিন যে বিমানটি দুর্ঘটনাগ্রস্ত হয়েছে, সেটি ১০-১২ বছর আগে চিন থেকে বিমানটি পিআইএ-র হাতে উঠেছিল বলে জানা গিয়েছে। বিমানের দু’টি ইঞ্জিন বিকল হয়ে যাওয়াতেই দুর্ঘটনা ঘটেছে, প্রাথমিক তদন্তে এমনটাই উঠে এসেছে বলে জানিয়েছেন পিআইএ-র এক আধিকারিক। এর আগে, গত বছরই পিআইএ-র একটি বিমান দুর্ঘটনার হাত থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছিল। গিলগিট বিমানবন্দরে অবতরণের সময় রানওয়ে চাকা পিছলে রানওয়ে থেকে ছিটকে বেরিয়ে গিয়েছিল বিমানটি।

তাতে কোনও প্রাণহানি হয়নি যদিও, তবে বিমানটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। দুর্ঘটনার খবর পেয়েই বেশ কিছু অ্যাম্বুলেন্স ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন উদ্ধারকর্মীরাও। পাক ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশনসের তরফে জানানো হয়েছে, পাক সেনার কুইক রেসপন্স ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। করাচির সমস্ত হাসপাতালে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে সে দেশের স্বাস্থ্য ও জনকল্যাণ মন্ত্রক।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!