কেরলের পর এবার বাংলার ডুয়ার্সের বক্সায় হাতির মৃত্যু নিয়ে ধোঁয়াশা

আজবাংলা    এবার বাংলায় উদ্ধার হাতির দেহ। মঙ্গলবার সকালে বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের পূর্ব বিভাগ নূরপুরের জঙ্গলে ওই হাতিটির দেহ পড়ে থাকতে দেখেন বনকর্মীরা। হাতির দেহে কোনও ক্ষতচিহ্ন পাওয়া যায়নি। প্রাথমিকভাবে বনকর্মীদের অনুমান, বজ্রাঘাতে মৃত্যু হয়েছে হাতির। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার আগে হাতির মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা সম্ভব নয় বলেই জানিয়েছেন বনাধিকারিকরা। মঙ্গলবার সকালেই ডুয়ার্সের বক্সা টাইগার রিজার্ভের পূর্ব বিভাগের নূরপুর জঙ্গলে একটি হাতির মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয় মানুষজন। সঙ্গে সঙ্গেই স্থানীয় বনদফতরে হাতিপোঁতা রেঞ্জে খবর দেয় তাঁরা। ঘটনাস্থলে এসে মৃত হাতিটির দেহ পর্যবেক্ষণ করেন বনদফতরের চিকিৎসক।  অন্যান্য দিনের মতো সোমবারও বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের পূর্ব বিভাগ নূরপুরের জঙ্গল ঘুরে দেখতে যান বনকর্মীরা। তখনই দেখা যায় জঙ্গলের মধ্যে পড়ে রয়েছে হাতির দেহ। তবে বনকর্মীরা জানান, হাতির দেহ কোনও ক্ষতচিহ্ন নেই। হাতির দেহাংশও অক্ষত রয়েছে। তাই কোনও চোরাশিকারীর অত্যাচারে যে হাতিটির মৃত্যু হয়নি সে বিষয়ে নিশ্চিত বনকর্মীরা। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, সোমবার রাতের বজ্রাঘাতে মৃত্যু হয়েছে হাতিটির।কেরলে ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পে হাতির দেহ উদ্ধারের ঘটনায় নতুন করে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। যদিও এই হাতিটির মৃত্যুর ঘটনায় অমানবিক আচরণ জড়িত নয় বলেই অনুমান বনকর্মীদের।