বিধাননগরকে ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন সিটি করতে দিচ্ছেনা রাজনৈতিক দলগুলি

saltlake
সল্টলেক

আজবাংলা  রাজনৈতিক দলগুলি ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন সিটি করতে দিছেনা এমনি অভিযোগ সাদারন মানুষের । পতাকায় থেকে হোর্ডিংয় দৃশ্য দূষণ মানতেই চাই ছেন না রাজনৈতিক দলগুলি । এমনই এক আবহে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। উঠছে নানা প্রশ্ন। বিধাননগরের সিজিও কমপ্লেক্সে সিবিআই অফিস ঘেরাওয়ের কর্মসূচি ছিল সিপিএমের। সে জন্যই সল্টলেকের রাস্তায় রাস্তায় লাল ঝান্ডা লাগিয়েছিল দল। এ দিন পুরকর্মীরা সেই ঝান্ডা খুলে দিলে রাজনৈতিক দলগুলির মাথায় বাজ পড়ে ।বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তের উপর প্রশ্ন তুলেছেন স্বয়ং দলের মহা সচিব শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়  তিনি বলেন মেয়রের ছবি দেওয়া হোর্ডিং তো আছে? সেগুলো কি দৃশ্যদূষণ ঘটায় না? নিজের ছবি না থাকায় তৃণমূলেরও বহু হোর্ডিং উনি অতীতে খুলে দিয়েছেন।’’ সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রের বক্তব্য, তৃণমূলও লাল রং ভয় পায়। সব প্রশ্ন এড়িয়ে সব্যসাচীবাবুর জবাব, ‘‘ওই হোর্ডিংয়ের সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই।’ সল্টলেকের রাস্তায়কে ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন সিটি করতে এই পদক্ষেপ নেয়া হয় । সব্যসাচীর ক্লিন ও গ্রিন সল্টলেকের হোর্ডিংয়ে যেটা ছিল এক্কেবারে ‘মিসিং’। তিনি বিধাননগর পুরসভার মেয়র, তাই তাঁর একার ছবিই ছিল হোর্ডিংয়ে। তৃণমূলের সূত্রের খবর, মূলত সেই কারণেই হোর্ডিং নামিয়ে দেওয়ার নির্দেশ এসেছে উপর থেকে।