কোভিড-১৯ কেয়ার সেন্টারে ধর্ষণের শিকার কিশোরী, ধর্ষকও আক্রান্ত করোনা ভাইরাসে

কোভিড-১৯ কেয়ার সেন্টারে ধর্ষণের শিকার কিশোরী, ধর্ষকও আক্রান্ত করোনা ভাইরাসে
আজবাংলা     এমনও ঘটনা ঘটে পাড়ে? হতবাক সকলে! আজকাল আর কি কি না দেখতে হচ্ছে মানুষকে | এই পরিস্থিতির মধ্যেও মানুষের মনে এই ধরণের কাজের কথা মাথায় আসে কি করে? সেটাই ভাবছে আজ সকলকে | শরীরে বাসা বেঁধেছে মরণ ভাইরাস | যেকোন সময় প্রাণ কেড়ে নিতে পাড়ে | তা সত্ত্বেও ভয় নেই মানুষের | ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিল্লির কোভিড-১৯ কেয়ার সেন্টারে | কোভিড সেন্টারে একজন করোনা আক্রান্ত যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে আরেক করোনা রোগীর বিরুদ্ধে | ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে ১৯ বছরের এক যুবক ও তার বন্ধুকে | জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ২ জন ও নির্যাতিত কিশোরীটি তিনজনেই দিল্লির একটি বস্তির বাসিন্দা | কয়েকদিন আগে তাদের করোনা রিপোর্ট পসিটিভ আসায় তাদেরকে নিয়ে এসে সেন্টারে ভর্তি করানো হয় চিকিৎসার জন্য | গত ১৫ জুলাই বাথরুমে যাওয়ার সময় ওই কিশোরীকে যৌন হেনস্থা করে অভিযুক্ত দুই যুবক | এমনকি যৌন হেনস্থার ভিডিও তারা নিজেদের মোবাইলে ভিডিও করে নেয় বলেও অভিযোগ করা হয়েছে | যৌন হেনস্থার পর প্রথমে সেই কিশোরী ভয়ে মুখ খোলেনি | কিন্তু তারপরে এক আত্মীয়কে সব কথা জানায় সে | কারণ তার পরিবারের কিছুজন ও ভর্তি আছেন ওই হাসপাতালে | তারাও আক্রান্ত এই মরণ ভাইরাসে | তারপরেই পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয় | পুলিসের তরফে জানানো হয়েছে, দুই অভিযুক্তকে ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে আদালতে হাজির করা হয় | বিচারক ২জনকেই জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন | অন্যদিকে ওই কিশোরীটিকে আপাতত অন্য এক কোভিড কেয়ার সেন্টারে পাঠানো হয়েছে | দেশের মধ্যে সব চেয়ে বড় এই কোভিড সেন্টার | সেখানেই এরাম ঘটনা ঘটলো তাতে স্বাভাবিক ভাবেই সকলে চমকে উঠেছেন | ওই করোনা সেন্টারের নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছে ইন্দো-টিবেটান বর্ডার পুলিশ | কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওই সেন্টারে ১০ হাজার ২০০ করোনা বেড রয়েছে | তবে বর্তমানে সেখানে মাত্র ২৫০ জন রোগী রয়েছে | তারফলেই প্রচুর ফাঁকা জায়গা পরে রয়েছে এবং তারই সুযোগ নিয়েছে ওই দুই অভিযুক্ত | পাশাপাশি ওই কিশোরীর 1কলকাতা পরীক্ষায় যৌন হেনস্থার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে |