সালিশিতে অবৈধ সম্পর্কে জড়িত ব্যক্তিকে মারধর।

arbitration is beaten up.
সালিশিতে মারধর
আজ বাংলা মালদা : গ্রামের পর মহিলার সঙ্গে অবৈধ্য সম্পর্ক ঘিরে গ্রাম্য সালিশিতে চললো মারধর।সালিশিতে অবৈধ সম্পর্কে জড়িত ব্যক্তিকে মারধর।বাঁচাতে আসলে মারধর করা হয় ওই ব্যক্তির মা ও স্ত্রীকে।সালিশির মাতব্বরদের হাতে গুরুতর জখম ওই দুই মহিলা চিকিৎসাধীন হাসপাতালে।ঘটনাটি ঘটেছে মালদার ইংরেজবাজার থানার আরাপুর ঘোষপাড়া এলাকায়। জানা গেছে,আক্রান্তরা হলেন মা ফুলসারি বিবি(৫২),ছেলে সারিফুল শেখ ও তার স্ত্রী তারিফা বিবি(২৪)।ছেলে ছাড়া পেলেও আক্রান্ত মা ও স্ত্রী  চিকিৎসাধীন মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে,সারিফুল শেখ পেশায় রাজমিস্ত্রী।গ্রামেরই তৈয়বা বিবি নামের এক মহিলার সঙ্গে সারিফুলের অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে।এই সম্পর্ক ঘিরে বেশ কয়েকবার গ্রামে বিচার সালিশী হয়।ওই মহিলার সাথে কোনো রকম সম্পর্ক থাকবে না বলেই সিদ্ধান্ত হয় সালিশিতে। মঙ্গলবার রাতে আবারো সারিফুল ওই মহিলার সাথে কথা বলছিলেন,যা দেখে নেই গ্রামের বাসিন্দারা।তারপরই বুধবার রাতে গ্রামে বসে বিচার সালিশী।অভিযোগ,সেই সালিশিতে সারিফুলকে মারধর করতে শুরু করে।সারিফুলকে মারধর করতে দেখে বাঁচাতে ছুটে আসে মা ফুলসারি বিবি ও স্ত্রী তারিফা বিবি।অভিযোগ দুই মহিলাকেও বেধরক মারধর করা হয়। রাতেই তিন আহতকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন পরিজনেরা।বর্তমানে দুই মহিলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।মা ফুলসারি বিবির বাম চোখে আঘাত গুরুতর।এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে ইংরেজবাজার থানায় মারধরের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত বিকি নাদাক  সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে আক্রান্তের পরিবার।ঘটনার তদন্তে নেমে একজনকে আটক করেছে পুলিশ এবং ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে।