রাজনীতি কি ভাই ও বোনের মধ্যে বাধা? । ভাইফোঁটা নিতে এলোনা মুখ্যমন্ত্রীর প্রিয় দুই ভাই

Mukul Roy Mamta Bandyopadhyay's Shovon Chattopadhyay
মুকুল রায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শোভন চট্টোপাধ্যায়

আজবাংলা কালিঘাটের বাড়িতে ভাই ফোঁটা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । এদিন ভাই ফোঁটায় অনুপস্থিত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এক সময়ের প্রিয় দুই ভাই  শোভন চট্টোপাধ্যায় ও মুকুল রায় ।  যদিও শুক্রবার তিনি তাঁর কালিঘাটের বাড়িতে ভাই ফোঁটা দিলেন সাংসদ সুব্রত বক্সি, ডেরেক ও ব্রায়েন, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, অরূপ বিশ্বাস, ইন্দ্রনীল সেন , নির্মল মাঝি, তমোনাশ ঘোষ, সমীর চক্রবর্তী দের । দিদির প্রিয় ভাই কাননকে দেখার জন্য অপেক্ষায় ছিল সবাই । এক ভাই বিজেপি নেতা মুকুল রায় দল ছাড়ার পর আর যায়না কালীঘাটের দিদির বাড়িতে । (কলকাতার মেয়র তথা মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়) ঘরের ছেলে কাননের দেখা নেই কালীঘাটের দিদির বাড়িতে। রাজনৈতিক মহলে কানাঘুষো চলছে এক সময় যাদের  দিদির কালীঘাটের বাড়ির উঠোনের ত্রিসীমানায় দেখা জেত্না তাঁরাই ভাই ফোঁটা নিতে কালীঘাটের বাড়িতে এখন । আর যারা না আসলে ভাই ফোঁটা দিতনা দিদি, আজ সেই ভাইরা ব্রাত্য। কালীপুজোর দিনেও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে দেখা যায়নি কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে । প্রতি বছরের মতো এবারেও তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা মন্ত্রীরা হাজির হন মুখ্যমন্ত্রীর কালীপুজোর অঙ্গনে । কিন্তু শেখানে দেখা যায়নি শোভনকে । ভাইয়ের মঙ্গঁল কামনায় ফোঁটা দেন বোনেরা । বছরের এই একটি দিন রাজনীতির উর্ধ্বে উঠে দিদির বাড়ি যেতে পারতোনা কি ভাইরা বা দিদি কি ডাকতে পারতোনা ভাই দের, রাজনীতি কি এতই বাধা ?