দেখে নিন খালি পেটে জল খাওয়ার কি কি উপকারিতা আছে

দেখে নিন খালি পেটে জল খাওয়ার কি কি উপকারিতা আছে

আজবাংলা   যখন আমরা তৃষ্ণার্ত হই বা ঝালজাতীয় খাবার খাওয়ার পর তৎক্ষণাৎ এক গ্লাস জল খাই। শরীরের বর্জ্য বের হতে, শরীরের তাপমাত্রা রক্ষায়, সংবেদনশীল টিস্যু সুরক্ষাসহ বহু কারণে জল দরকার। কিন্তু, খালি পেটে জল পান করলে আরও বেশি স্বাস্থ্য উপকারিতা মেলে।

আসুন, আজকের প্রতিবেদনে দেখে নেব কি কি উপকারিতা মেলে। ঘুম থেকে ওঠার পর শরীরের রিহাইড্রেশনের জন্য জল দরকার। কারণ, রাতে আপনি যখন ঘুমান, ছয় থেকে আট ঘণ্টা আপনার শরীরে জল পায় না। তাই ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস জল পান করলে শরীর রিহাইড্রেট হবে

সকালে ঘুম থেকে উঠে চার গ্লাস জল পান করা দরকার। কিন্তু প্রথম দিকে যদি কঠিন মনে হয়, তাহলে এক গ্লাস জল দিয়ে শুরু করতে পারেন। ধীরে ধীরে জলের পরিমাণ বাড়ান।

১. শক্তি জোগায়-  সকালে জল পান করলে তাৎক্ষণিকভাবে শক্তির মাত্রা বাড়ে। কারণ, সকালে যদি আপনার শরীর ডিহাইড্রেটেড থাকে, তাহলে আপনি ক্লান্তিবোধ করবেন।

২. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়-  খালি পেটে জল খেলে শরীরের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। বর্জ্য ও অন্যান্য ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে জল, যা থেকে সংক্রমণ ও অসুস্থতা হয়।

৩. ক্যালোরি কমায়-  খাবার আগে জল পান করলে ক্যালোরি কমাতে সাহায্য করে। জলের কারণে পেট ভরা অনুভব হয়, এতে অতিরিক্ত খাবার গ্রহণ হয় না। সকালে খাওয়ার ৩০ মিনিট আগে জল পান করুন।

৪. দূষিত পদার্থ বের করে-  সকালে খালি পেটে জল খেলে শরীর থেকে দূষিত পদার্থ বের হয়ে যায়। বর্জ্য বের করতে কিডনির জল দরকার হয়। জল খেলে প্রস্রাবের সঙ্গে বর্জ্য বের হয়ে যায়।

৫. হজমে সহায়তা করে-  সকালে ঘুম থেকে উঠে হালকা গরম জল খেলে তা হজমে সাহায্য করবে। গরম জল খাদ্য উপাদানকে ভাঙতে সাহায্য করে। এভাবে হজমপ্রক্রিয়ার উন্নতি হয়।

৬. ত্বক উজ্জ্বল করে- সকালে খালি পেটে জল পান করলে ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। এতে ব্রণ কমে। ত্বকের শুষ্কভাব দূর করে আর্দ্রভাব এনে দেয়।

৭. অঙ্গকে সুস্থ রাখে-  খালি পেটে জল পান করলে শরীরের অভ্যন্তরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সুস্থ থাকে। শরীরের লিম্ফ্যাটিক সিস্টেমকে উন্নত করে এবং শরীরের তরলে ভারসাম্য আনে।

৮. ওজন কমায়-  জল ও ওজন কমার মধ্যে সম্পর্ক রয়েছে। খালি পেটে জল পান বিপাকক্রিয়ার উন্নতি সাধন করে। ফলে ওজন কমে।

৯. মানসিক স্বাস্থ্যে-  ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস জল পান করলে তা মানসিক বিকাশে সাহায্য করে। যেমন—স্মরণশক্তি বাড়ে, নতুন কিছু শেখা বাড়ে।