সন্তানের উচ্চতা বাড়াতে নিয়মিত খাওয়ান এই সবজিগুলি

সন্তানের উচ্চতা
সন্তানের উচ্চতা

আজবাংলা লম্বা মানুষের প্রতি প্রায় সকলেরই একটু বাড়তি আকর্ষণ কাজ করে। একটা নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত মানুষের শরীরের বৃদ্ধি ঘটে, বাড়ে উচ্চতা। সন্তান কতটা লম্বা হবে তা অনেকটাই নির্ভর করে বংশগত বৈশিষ্ট্যের উপর। তবে উচ্চতা ঠিক মতো বৃদ্ধি পাওয়ার ক্ষেত্রে সঠিক খাওয়া-দাওয়ারও ভূমিকা রয়েছে।একটা নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত মানবদেহের বৃদ্ধি ঘটে, উচ্চতা বাড়ে। তাই ৫-৬ বছর বয়স পেরলেই সন্তানের বাড়-বৃদ্ধি নিয়ে প্রায় সব বাবা-মা-ই চিন্তা করেন। শিশুর একেক বয়সে উচ্চতা বৃদ্ধির হার একেক রকম। শিশুরা বছরে ১০-১৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত বাড়তে পারে। বয়ঃসন্ধিকালে হঠাৎ করেই লম্বা হওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি বেড়ে যায়। ১৪-১৫ বছরের পর থেকে বৃদ্ধির হার আবারও কমতে থাকে, গড়ে ১ সেন্টিমিটার হারে বেড়ে চলে ১৯ থেকে ২১ বছর বয়স পর্যন্ত। এরপর একসময় বৃদ্ধি থেমে যায়। অনেক সময় লম্বা হওয়ার জন্য অনেক বাবা-মা শিশুকে ব্যায়াম করান। তবে শুধু ব্যায়াম করলেই হবে না ব্যায়ামের সাথে আপনার খাবারের দিকেও নজর দিতে হবে। অনেক খাবার আছে যা আপনার শিশুকে লম্বা হতে সাহায্য করবে। এ বার জেনে নেওয়া যাক, কোন খাবারগুলি শিশুর বৃদ্ধির সময় উচ্চতা বাড়াতে বিশেষ ভাবে সাহায্য করে

১) ঢ্যাড়স: যে সবজিগুলি উচ্চতা বৃদ্ধিতে বিশেষভাবে সহায়ক, তার মধ্যে ঢ্যাড়স অন্যতম। ঢ্যাড়সে আছে ভিটামিন, মিনারেল, ফাইবার, কার্বোহাইড্রেট ও জল, যা গ্রোথ হরমোনের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে উচ্চতা বাড়াতে সাহায্য করে। ২) শালগম: অনেকেরই পছন্দের সবজির তালিকায় রয়েছে শালগম। শালগম উচ্চতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। শালগমে আছে ভিটামিন, প্রোটিন, মিনারেল, ফাইবার, আর ফ্যাট। এই উপাদানগুলি উচ্চতা বৃদ্ধিতে অত্যন্ত কার্যকর।৩) মটরশুঁটি: আট থেকে আশি— সকলেরই পছন্দের তালিকায় রয়েছে মটরশুঁটি। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, মিনারেল, লুটেইন, ফাইবার ও প্রোটিন যা শরীরের উচ্চতা বৃদ্ধির গতি ত্বরান্বিত করতে সাহায্য করে। তবে শুকনো মটরশুঁটিতে এই সমস্ত উপাদান বা পুষ্টিগুণ থাকে না। ৪) বাঁধাকপি: ধাকপিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, মিনারেল, প্রোটিন, ফাইবার আর আয়রন যা উচ্চতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করার পাশাপাশি ক্যান্সার প্রতিরোধেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ৫) পালং শাক: যে সবজিগুলি উচ্চতা বৃদ্ধিতে বিশেষভাবে সহায়ক, তার মধ্যে পালং শাক অন্যতম। পালং শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, ফাইবার ও মিনারেল। এই উপাদানগুলি উচ্চতা বৃদ্ধির গতি ত্বরান্বিত করতে সাহায্য করে। ৬) সয়াবিন: সয়াবিনের রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন যা টিস্যু ও হাড় গঠনে অত্যন্ত কার্যকর। প্রতিদিন অন্তত ৫০ গ্রাম সয়াবিন খেতে পারলে মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই উচ্চতা কয়েক ইঞ্চি বেড়ে যাবে। ৭) ব্রোকলি: উচ্চতা বৃদ্ধির গতি ত্বরান্বিত করতে সবুজ রঙের এই সবজিটির ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ব্রোকলিতে রয়েছে ভিটামিন সি, ফাইবার, আয়রন, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা উচ্চতা বাড়াতে সহায়তা করে।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!