বকেয়া বিদ্যুতের বিল নিয়ে বড় ঘোষণা সিইএসসি

বকেয়া বিদ্যুতের বিল নিয়ে বড় ঘোষণা সিইএসসি
আজবাংলা    গত দু'মাসের বকেয়া বিদ্যুতের ইউনিটের টাকা আপাতত মেটাতে হবে না তাঁদের। বদলে শুধুমাত্র জুন মাসে ব্যবহার করা বিদ্যুতের বিল মেটালেই চলবে বলে রবিবার জানাল সিইএসসি। বেসরকারি বিদ্যুত সরবরাহকারী সংস্থার এই সিদ্ধান্তকে 'কলকাতার জয়' বলে চিহ্নিত করেছেন যুব তৃণমূলের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার সন্ধেবেলা টুইট করে তিনিই এই খবর দেন। পাশাপাশি বিদ্যুতের বিল জমা দেওয়ার সময়সীমাও বাড়ানো হয়েছে বলে খবর।প্রসঙ্গত, জুলাই মাসে ওই সংস্থার পাঠানো বিল দেখে মাথায় হাত পড়েছিল মধ্যবিত্তদের। কারোর বিল এসেছে ১০ হাজার তো কারেরা আবার ২০ হাজার। একে তো লকডাউনে কাজকর্ম নেই তেমন। তারউপর বিদ্যুতের বিলের বহর দেখে মাথায় হাত পড়েছিল কলকাতা ও তত্‍ সংলগ্ন এলাকার আমজনতার। এই বিভ্রাট থেকে রেহাই পাননি খোদ বিদ্যুত্‍মন্ত্রীও। বিদ্যুতের বিল নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন 12ের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ও। তাঁর নিজের বাড়ির বিলও বেশি এসেছে বলে মনে করেন বিদ্যুৎমন্ত্রী। এদিকে শনিবার এই বিদ্যুৎ বণ্টনকারী সংস্থা বিজ্ঞাপণ দিয়ে জানিয়ে দেয় তারা কোনও বাড়তি বিল নিচ্ছে না। তাতেও কিন্তু মানুষের ক্ষোভ কমেনি। শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় শনিবার ফের সংস্থাকে নির্দেশ দেন, বিজ্ঞাপনে কোনও কিছুই স্পষ্ট হয়নি। ফলে ব্যাখ্যা দিয়ে ফের বিজ্ঞাপণ দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন সিইএসসি-কে।এরপর চাপের মুখে নরম হয়েছে সিইএসসি। চাপের মুখে সিদ্ধান্ত বদল করে সিইএসসি। আপাতত এপ্রিল ও মে-র বিল স্থগিত করার কথা ঘোষণা করেছে। আপাতত জুনের বিল দিলেই চলবে।  রবিবার সংস্থার তরফে জানানো হয়, এপ্রিল ও মে মাসের অতিরিক্ত টাকা আপাতত মেটাতে হবে না। শুধুমাত্র জুনে ব্যবহার করা বিদ্যুতের মাশুলই চোকাতে হবে গ্রাহককে।