গুদামের চাবিকে কেন্দ্র করে বচসার জেরে চলল গুলি

Bullet
তৃণমূল কর্মী
Bullet
তৃণমূল কর্মী

আজবাংলা মালদা : গুদামের চাবিকে কেন্দ্র করে বচসার জেরে চলল গুলি।গুলিবিদ্ধ এক তৃণমূল কর্মী।ঘটনাটি ঘটেছে মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর রেল স্টেশন সংলগ্ন এলাকায়।গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী বর্তমানে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।ঘটনায় দু’জনের বিরুদ্ধে হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।পুলিশ তদন্ত শুরু করলেও অধরা অভিযুক্তরা। জানাগেছে,আহত তৃণমূল কর্মীর নাম রুহুল আমিন(৩০)। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার মালিওর গ্রাম পঞ্চায়েতের ডুমুরিয়া গ্রামের বাসিন্দা।পেশায় ব্যবসায়ী।এলাকায় তৃণমূল কর্মী হিসেবে পরিচিত। আক্রান্ত তৃণমূল কর্মী রুহুল আমিন জানান, হরিশ্চন্দ্রপুর স্টেশনের কাছে দলীয় কার্যালয়ের সামনে রুহুল আমিন স্থানীয় কয়েকজন মিলে একটি চালের গুদাম পরিচালনা করেন। শনিবার রাতে সেই গুদামের সামনে শ্রমিকদের মধ্যে ঝামেলা বাধে ৷ রুহুল আমিন সেই ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েন ৷ সেই সময় হায়দার আলি, জামির আলি সহ কয়েকজন তাঁর কাছে থাকা গুদামের চাবি জোর করে কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করে ৷ রুহুল তাদের চাবি না দেওয়ায় তারা তাঁকে মারধর করে ৷ জামির ও হায়দার তাঁরই প্রতিবেশী ৷ হঠাৎ তাদের মধ্যে একজন তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় ৷ গুলি লাগে তাঁর বাম হাতের কবজিতে ৷ গুলির শব্দে এলাকার লোকজন ছুটে আসতেই তারা অভিযুক্তরা পালিয়ে যায় ৷ স্থানীয়রা গুলিবিদ্ধ অবস্থায় রুহুলকে স্থানীয় হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান ৷ খবর পেয়ে সেখানে আসে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশও ৷ তিনি হায়দার ও জামিরের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন ৷ রাতেই রুহুলকে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করে দেওয়া হয় ৷ তবে হায়দার ও জামির কোন রাজনৈতিক দল করে তা তিনি জানেন না।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করা হয়েছে ৷ তবে দুই অভিযুক্তই ঘটনার পর এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে ৷ তাদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করা হয়েছে ৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হরিশ্চন্দ্রপুর জুড়ে ৷