রাজ্যে হতে পারে বৃষ্টি? জেনে নিন কি বলছে আবহাওয়া দফতর

আজবাংলা    করোনা আতঙ্কে এখন এককথায় অলিখিত বন্‌ধের চেহারা নিয়েছে শহর। রাজ্যজুড়েও সেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এখনই গরম পড়ছে না রাজ্যে। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়ে দিয়েছে সে কথা। চৈত্রের শুরুতেই আংশিক মেঘলা আকাশ নিয়েই দিন শুরু হচ্ছে রাজ্যবাসীর। রবিবার থেকেই বৃষ্টির ভ্রূকুটি সড়িয়ে রাজ্যে বাড়ছে গরম। ইতিমধ্যেই কলকাতায় রাতের তাপমাত্রা বেড়েছে ১ ডিগ্রি। আজ কলকাতায় সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৩.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল বিকেলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩২.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।যদিও গরমের দাপট বৃদ্ধি পাওয়ায় করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমতে পারে, এমন কথাও শোনা যাচ্ছে।বিশেষজ্ঞরা বলছেন মারণ ভাইরাসের করাল থাবার থেকে ভারতকে আড়াল করে ঢালের মতো রয়েছে ভারতের আবহওয়া। চিকিৎসকরা বলছেন করোনার গুরুতর প্রভাব থেকে ভারত সুরক্ষিত।আর এই সুরক্ষার কারণ হল ভারতের উষ্ণ-আর্দ্র জলবায়ু।আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর বঙ্গোপসাগরে বিপরীত ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হতে পারে সপ্তাহের মাঝা-মাঝি সময়ে, যার ফলে প্রচুর পরিমানে জলিয় বাষ্প ঢুকবে রাজ্যে। ফলে সপ্তাহের শেষের দিকে বজ্র বিদ্যুত্‍ সহ ঝড় বৃষ্টির সম্ভবনা রাজ্য জুড়ে। আগামী ৪৮ ঘণ্টাই রাজ্যে জারি থাকবে শুষ্ক আবহাওয়া। আগামী দুদিন রাত ও দিনের তাপমাত্রা খুব একটা পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই। সপ্তাহান্তে আবারও ঝড় বৃষ্টির পূর্বাভাস আবহাওয়া দফতরের তরফে। বৃহস্পতি শুক্রবার ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা জোরালো গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে। মূলত পশ্চিমের জেলাগুলিতে ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। সম্ভাবনা বেশি শুক্রবার। বঙ্গোপসাগরে বিপরীত ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হবে সপ্তাহের মাঝামাঝি তার জেরেই প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকবে রাজ্যে। এর থেকে বজ্রগর্ভ মেঘ হয়ে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে।