চটহাটের নিজবাজারে মর্টার শেল নিষ্কিয় হলেও আতঙ্ক কাটেনি এলাকায়

Chhathat's own house, the area was not terrified
মর্টার শেল নিষ্কিয় হলেও আতঙ্ক কাটেনি

বিশ্বজিৎ সরকার,আজবাংলা দার্জিলিংঃ  শুক্রবার শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের অন্তরর্গত ফাঁসিদেওয়া ব্লকের চটহাট অঞ্চলের নিজবাজার এলাকায় চারটি মর্টার শেল নিষ্কিয় করা হলেও এখনও আতঙ্ক কেটে উঠতে পারছে না এলাকার বাসিন্দা। অপরদিকে যে জায়গায় চারটি মর্টার শেল নিষ্কিয় করা হয়েছে এদিনও কিন্তু সেই জায়গাটা দেখতে ভীড় জমান এলাকার মানুষজন ঠিক এমনই দৃশ্য দেখা গেল। সেই এলাকা বাসিন্দা একজন বলেন যে চারটি সেল নিষ্কিয় করা হলেও আমরা এখনওআতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। কারন এই রকম ঘটনা আমরা টিভিতে খবরে ও ছবিতে দেখতে পেতাম। কিন্তু ঠিক এমনই দৃশ্য দেখতে হবে তা কোনদিনও ভাবেই পারিনি। এবং আমরা চাই যে কোথা থেকে এল শেলগুলি। অন্যদিকে নিজবাজার এলাকা থেকে মাত্র দুই কিলোমিটার দূরে বাংলাদেশ বর্ডার। এবং অপরদিক রয়েছে বাগডোগরা বিমানবন্দর। যদিও গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার সকালে শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের অন্তরর্গত ফাঁসিদেওয়া ব্লকের চটহাট অঞ্চলের নিজবাজার এলাকায় তিস্তা ক্যানেলে প্রথম চারটি প্লাস্টিকের বক্স দেখতে পান ওই এলাকার বাচ্চারা। এবং ওই বাক্সের মধ্যে হয়তো টাকা বা বড় মাছ থাকতে পারে। সেই কৌতুহলে সেই বক্স খুলে দেখেন যে চারটি হলুদ রঙের লোকের বস্তু। এবং সেই সময় একজন সিভিক ভলান্টিয়ার ওই চারটি শেল দেখেই থানায় খবর দেয়। এরপরেই এই ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসেন বিশাল পুলিশ ও বিএসএফের উচ্চ পদস্থ অধিকারীকরা। অপরদিকে এই শেল দেখতে ভীড় জমান এলাকার মানুষজন। এবং এই ঘটনায় ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পড়ে। এরপর পুলিশ খবর দেয় সিআইডির বোম স্কোয়াডকে। এরপর সিআইডির বোম স্কোয়াড এসে দেখে। তারা জানিয়ে দেন যে তারা সেই মর্টার শেল গুলিকে নিষ্কিয় করতে পারবেনা। এবং তারা হাত উঠিয়ে নেয়। এরপর খবর দেওয়া হয় আর্মির বোম স্কোয়াডকে। এরপর শুক্রবার সকালে এসে পৌছায় কার্মি বোম স্কোয়াড। এবং দুপুরে চারটি শেলকে নিষ্কিয় করে।