শিশুদের ভালবাসার দিন ১৪ নভেম্বর,সারা দেশ জুড়ে পালিত হয় শিশু দিবস

শিশু দিবস
শিশু দিবস

অনুষ্কা রায় আজবাংলা শিশুদের নিয়ে উদযাপিত একটি দিবসকে শিশু দিবস বলাহয়। এটি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন সময় পালিত হয়ে থাকে। শিশু দিবসটি প্রথমবার তুরস্কে পালিত হয়েছিল সাল ১৯২০ সালের ২৩ এপ্রিল। বিশ্ব শিশু দিবস ২০ নভেম্বর-এ উদযাপন করা হয়।

এবং আন্তর্জাতিক শিশু দিবস জুন ১ তারিখে উদযাপন করা হয়। তবে বিভিন্ন দেশে নিজস্ব নির্দিষ্ট দিন আছে শিশু দিবসটিকে উদযাপন করার। ২০ নভেম্বর গোটা দুনিয়ায় শিশুদিবস হিসাবে উদযাপিত হলেও স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী পণ্ডিত জওহরলাল নেহরুর জন্মদিনটি সারা ভারতে উদযাপিত হয় শিশু দিবস হিসেবে। ছোটদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় পণ্ডিত জওহরলাল নেহরুর জন্ম হয় ১৪ নভেম্বর, ১৮৮৯ সালে উত্তর প্রদেশের এলাহাবাদে। তাই তাঁকে স্মরণ করেই পালিত হয় শিশু দিবস । তবে ১৯৬৪ সালের আগে  পর্যন্ত প্রতি বছর নভেম্বর মাসের  ২০ তারিখ পালিত হত শিশু দিবস কিন্তু ওই বছর নেহরুর মৃত্যুর পর থেকে সর্বসম্মতিতে দিন  বদল হয়।ওই দিন শিশুদের অধিকার, যত্ন এবং শিক্ষা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য নানা উত্সবের মাধ্যমে শিশু দিবস পালিত হয়।  শিক্ষার মূল ভিত্তি হিসেবে বিজ্ঞান চেতনা এবং যুক্তির ওপর জোর দেওয়ার কথা বলতেন পণ্ডিত জওহরলাল নেহরু। তাঁর কথায়, ‘শিশুরা বাগানের কুঁড়ির মতো। খুব যত্ন সহকারে ওদের দেখভাল করতে হয়। ওরা দেশের ভবিষ্যত্‍, আগামিকালের নাগরিক। একমাত্র সঠিক শিক্ষাই পারে একটা সুন্দর সমাজ গড়ে তুলতে।’ প্রতুল মুখোপাধ্যায়ের একটি গানের কয়েকটা লাইন দিয়ে আলোচনা শেষ করি, ‘ শিশু মেলা, শিশু দিন, শিশু বৎসর/ কত মধু মাখা দুই ছাপা অক্ষর/ আলো ঝলমল সভা ভাবের জোয়ার/তবু ভবিষ্যতেরা খাটে ভুতের বেগার’।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!