পড়ানোর নাম করে বাড়িতে ডেকে এনে নাবালিকাকে লাগাতার ধর্ষণ করলেন স্কুলের ম্যানেজার

পড়ানোর নাম করে বাড়িতে ডেকে এনে নাবালিকাকে লাগাতার ধর্ষণ করলেন স্কুলের ম্যানেজার

আজবাংলা         নারকীয় ঘটনা! গ্রামের মেয়ে তাই গ্রামের বাড়ি থেকে পড়াশুনা করতে অসুবিধা হচ্ছে | সেই কারণে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে নিজের বাড়িতে থাকার কথা বলেন স্কুলের ম্যানেজার | বাবা-মা ভাবলেন মেয়ে তাহলে ভাল করে পড়াশুনা করতে পারবে | তাই স্কুল ম্যানেজারের দেওয়া প্রস্তাবে রাজি হয়ে গেলেন ছাত্রীটির বাবা-মা | সেই সুযোগটি অপব্যাবহার করলেন অভিযুক্ত স্কুলের ম্যানেজারটি | মেয়েটি তার বাড়ি পৌঁছনোর পর থেকেই তাকে লাগাতার ধর্ষণ করে সে | এমনি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে স্কুল ম্যানেজারের বিরুদ্ধে | 

এই জঘন্য ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গোলায় | মাত্র ১০ দিনের ব্যবধানে গোলা থানায় দ্বিতীয়বার নাবালিকা ধর্ষণের অভিযোগ সামনে এল | এই ঘটে অভিযুক্ত স্কুল ম্যানেজার পলাতক | ছাত্রীটির পরিবার জানিয়েছেন, পড়াশুনার জন্য মেয়েকে এই বলিদান দিতে হবে তা কখনও ভাবতেও পারিনি | আমরা টেরও পাইনি এমন ঘটনা ঘটে পারে বলে | সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীটি পুলিশকে জানিয়েছে, গত ৩০ জুলাই স্কুলের ম্যানেজার হরেন্দ্র যাদব (৩৮) তাকে রাতভর লাগাতার ধর্ষণ করে | তারপর তার নগ্ন অবস্থার ভিডিও রেকর্ড করে অভিযুক্ত | সে ছাত্রীকে ভয় দেখিয়ে বলে এই কথা কাউকে জানালে নেটদুনিয়ায় সমস্ত ভিডিও ছেড়ে দেবেন | 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ওই স্কুল ম্যানেজার মেয়েটির একটি ভিডিও করে নেয় | তারপর থেকেই মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেল করতে শুরু করে সে | বাড়ি বা বাইরের কাউকে ঘটনার কথা জানালে ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দেওয়ার হুমকি দিতে থাকে | এই কারণে ওই কিশোরীটি  সাংঘাতিক ভয় পেয়ে যায় | পাশাপাশি অভিযুক্ত আরও ভয় দেখিয়ে মেয়েটিকে বলে এই কথা তার বাবাকে জানালে সে বিসসাস করবে না | উল্টে সামাজিক লজ্জার জন্য মেয়েটিকে তার বাবা খুন করে দেবে | 

কিন্তু কয়েকদিনের মধ্যেই কিশোরীটি তার বাড়িতে সমস্ত ঘটনার কথা খুলে বলে| এরপরেই তার বাবা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন | অন্যদিকে ওই ঘটনার পর থেকেই পলাতক ওই অভিযুক্ত স্কুল ম্যানেজার | পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ধর্ষণ এবং পকসো আইনে মালা রুজু হয়েছে | অন্যদিকে এলাকায় ১০ দিনের মধ্যে দু’টি ধর্ষণের ঘটনার জন্য বদলি করে দেওয়া হয়েছে গোলার ষ্টেশন হাউজ ইনচার্জকে |