হাড়কাঁপানো ঠান্ডায় শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতা কলকাতা সমেত ১১ জেলায়।

আজবাংলা   পশ্চিমী ঝঞ্ঝা সরে যাওয়ায় রাজ্যে উত্তুরে বাতাস ঢুকতে আর কোনও বাধা নেই। কয়েক দিন আগে সান্দাকফুতে তুষারপাতের জেরে উত্তরের জেলাগুলিতে তাপমাত্রা নিম্নমুখী হয়। সিকিমের বিভিন্ন জায়গাতেও চলছে তুষারপাত। কাশ্মীর জুড়ে গত কয়েক দিন ধরেই চলছে শৈত্যপ্রবাহ। তুষারপাত। শ্রীনগরের তাপমাত্রা মাইনাসের নীচে চলে গিয়েছে।উত্তরের হিমেল হাওয়ায় থর থর করে কাঁপছে পাহাড় থেকে সমতল। পৌষের শুরুতেই এক ধাক্কায় পারদ পতন হয়েছে অনেকটাই। শীতের দাপট চলবে আরও কয়েক দিন। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, কলকাতা সমেত ১১টি জেলায় শৈত্যপ্রবাহের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। শুক্রবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কমে ১০ ডিগ্রির ঘরে চলে যেতে পারে। সকাল থেকেই কনকনে ঠান্ডা হাওয়া কাঁপিয়ে দিয়েছে শহর কলকাতা। বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। তার উপর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে শহর কলকাতায় তাপমাত্রা নামবে ১০ ডিগ্রী সেলসিয়াসে। বাঁকুড়া, বর্ধমান, আসানসোল, শিলিগুড়িতে ১০ সেলসিয়াসের নিচে তাপমাত্রা নেমে গেছে। সবাইকে ছাড়িয়ে দার্জিলিং এর তাপমাত্রা নেমেছে ৪ ডিগ্রিতে। এবার সেই তালিকায় নাম লেখালো কলকাতাও।