এবার সদ্য প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি কি বিজেপিতে

Congress in the BJP, what is the BJP?
বিজেপিতে বিরোধীরা

আজবাংলা  পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল দেখেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিতে পারেন অনেক নেতারা। পাঁচ রাজ্যে বিধানসভার ফলাফল দেখার পরই হাওয়ার চলন বুঝে নিজের পরবর্তী গন্তব্য ঠিক করবেন কি অধীর চৌধুরী। বিজেপি ছাড়া আর কোনও বিকল্প হাতে থাকছে না অধীরের এমনটাই ধারণা রাজনৈতিক মহলের । মহালয়ার দিনই মুকুল রায় জানান, পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল দেখেই রাজ্যের অনেক নেতাই বিজেপিতে যোগ দেবেন ।রাজনীতির ময়দানে শত্রুর শত্রু আমারও শত্রু, এই ফর্মুলা কাজে লাগালেই বিজেপিতে চলে আসতে পারেন অধীর। তবে সেই চরম পদক্ষেপের জন্য অপেক্ষা করতে হতে পারে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত। প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির রন্ধ্রে রন্ধ্রে মমতা বিরোধী মনোভাব সম্পর্কে সকলেই ওয়াকিবহাল। কার্যত মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি তাঁর কট্টর বিরোধিতার কারণেই সভাপতির পদ থেকে তাঁকে অপসারিত করা হয় বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের। অন্যদিকে, মমতা বিরধিতাকেই অস্ত্র হিসেবে বেছে ২০১৯ সালে বাংলার মাটিতে দাগ কাটতে চাইছেন দিলীপ-মুকুলরা।  এবার সদ্য প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীকে নিয়েও বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। যার থেকে তীব্র আশঙ্কার সৃষ্টি হয়েছে যে, মমতা বিরোধিতা চালিয়ে যেতে শেষমেশ বিজেপিতেই নাম লেখাতে পারেন অধীর। রাঘব-বোয়াল কেউ বিজেপিতে যোগ না দিলেও বাম, কংগ্রেসের প্রচুর কর্মী সমর্থক বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন। বিরোধী দলগুলিকে ভাঙিয়ে গেরুয়া শিবিরে ভিড়িয়ে দেওয়ার কাজ বেশ পটুভাবে করেছেন মুকুল রায়।