বেতন সমস্যায় কুপথে চালিত হতে পারেন খেলোয়াড়রা, নতুন রিপোর্টে বাড়ছে দুশ্চিন্তা

বেতন সমস্যায় কুপথে চালিত হতে পারেন খেলোয়াড়রা, নতুন রিপোর্টে বাড়ছে দুশ্চিন্তা
আজ বাংলাঃ  সাদামাটা খেলাধুলাতেও অনেক দিন আগে পা পড়েছে দুর্নীতি, গড়াপেটার। করোনা আবহে এই ছায়া আরও বিস্তার লাভ করতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। শ্রমিক, মজুরদের যেমন বেতন সমস্যায় ভুগতে হয়েছে এই সময়কালে। তেমনই বেতন কাটছাঁট হয়েছে ক্রীড়া ক্ষেত্রের কিছু অংশে। বেতন কমে যাওয়া বা কেটে নেওয়া যে কোনও ব্যক্তির কাছেই মেনে নেওয়া কষ্টসাধ্য। সেটাই হাতিয়ার করতে পারেন দুর্নীতিকারীরা। সম্প্রতি ইউনাইটেড নেশনস, 3 অলিম্পিক কমিটি এবং ইন্টারপোল একত্রে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। সেখানে আশঙ্কা করা হচ্ছে, উপার্জন বাড়ানোর জন্য অথবা অন্তত আগের মতো রোজগারের জন্য বহু ক্রীড়াবিদ বেপথে চালিত হতে পারেন। রিপোর্টে বিভিন্ন ক্রীড়া সংস্থাকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে, প্রথম সারির খেলোয়াড়দের বেতনে প্রভাব পড়লেও, যেন সাহায্য করা হয় তথাকথিত নিচু সারির ক্রীড়াবিদদের। কারণ, দুর্নীতিবাজদের নজরে প্রথমে তারাই চলে আসতে পারেন। বেতন সমস্যার সুযোগ নিয়ে দুর্নীতিবাজরা যে তাদের থাবা চওড়া করতে চাইবেন 3 অলিম্পিক কমিটি-ও তা আগে বুঝেছিলেন। তাই সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছিলে, করোনা অধ্যায়ে খেলাধুলায় স্বচ্ছতা এবং সততা বজায় রাখাই একটা 'চ্যালেঞ্জ'। একই সঙ্গে দুর্নীতি রোধে কঠোর আইন প্রণয়নের পরামর্শও দেওয়া রয়েছে উক্ত রিপোর্টে। ইতিমধ্যে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের দুর্নীতি দমন শাখার প্রধান অজিত সিং কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আইন প্রণয়ন করার ব্যাপারে আর্জি জানিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।