নদীয়ায় বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা উপেক্ষা করে অনুষ্ঠিত হলো দৃষ্টিহীনদের ক্রিকেট

মলয় দে আজবাংলা  শান্তিপুর : সারা দুনিয়ার সাথে ক্রিকেট উন্মাদনায় মাতেন বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিরাও। ইচ্ছা থাকলে কি না হয়! এইতো সেদিন, ইংল্যান্ডের মাটি তে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়ে আসলো ভারতীয় দিব্যাঙ্গ ক্রিকেট টিম। প্রতিতা রাজ্যের মতো জেলায় জেলায় গড়ে উঠেছে বিশেষ চাহিদা সম্পন্নদের ক্রিকেট দল। বিভিন্ন সংস্থা, ক্লাব, বেসরকারি ,ব্যক্তিগত ভাবে অনেকেই এদের ক্রিকেট নিয়ে সদর্থক ভূমিকা নেওয়ায় ক্রমশ জনপ্রিয়তা লাভ করছে।শান্তিপুর অমর সংঘ প্রতিবছরই ক্রিকেট টুর্নামেন্টের একটি দিন প্রদর্শনী ম্যাচ হিসেবে রাখেন দিব্যাঙ্গ ক্রিকেট। এবছরও আজ 11 ই জানুয়ারি শনিবার শান্তিপুর বেশ পাড়ার মাঠে,জেলাব্যাপী বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন দের নিয়ে কাজ করা সংগঠন প্রতিবন্ধন এর ব্যবস্থাপনায় সকাল দশটায় আয়োজিত হলো আংশিক, সম্পূর্ণ দৃষ্টিহীনদের ক্রিকেট। নদীয়া জেলার শ্রীচৈতন্য ওয়েলফেয়ার সোসাইটি অধিনায়ক (বিল্টু গড়াই)বনাম প্রতিবন্ধন (বিভিন্ন জেলা থেকে আগত) এরমধ্যে 10 -10 ওভারের একটি বলও চোখের নজর এড়াতে পারেননি 10 হাজার দর্শক। অভিভূত হয়ে তারা লক্ষ্য করছিলেন, কেউবা মোবাইলে স্মৃতি হিসেবে সংরক্ষণ করছিলেন সম্পূর্ণ দৃষ্টিহীন শুধুমাত্র বলের মধ্যে রাখা একটি ঝুমঝুমির শব্দ নিরিখে বলের উপর কত দূরদর্শীতার সাথে নিয়ন্ত্রণ রাখছেন।বেলা 12 টায় শুরু হয় বাংলা (অধিনায়ক অভিজিৎ বিশ্বাস)এবং দিল্লির (অধিনায়ক শচীন ভাটি) মধ্যে দিব্যাঙ্গ ক্রিকেট। কেউবা একটা পা নিয়ে আর একটি লাঠির উপর ভর করে বল করে চলেছেন সাবলীল, কারো বা একটি হাত না থাকায় এক হাতেই 6 -4 রানের বন্যা। দর্শকদের কত তারিখ, অনুপ্রেরণা মূলক আওয়াজে মুখরিত ছিল শান্তিপুর তথা নদীয়ার আকাশ।উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রিনা প্রামানিক, ওসি মুকুন্দ চক্রবর্তী, বিডিও সুমন দেবনাথ সহ বিশিষ্টজনেরা।